পাবনায় ১২ বছরের শিশুর হাতে দুই বছরের কন্যাশিশু খুন
jugantor
পাবনায় ১২ বছরের শিশুর হাতে দুই বছরের কন্যাশিশু খুন

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি  

০৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:২৪:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

হত্যা

পাবনার চাটমোহরে মামাতো ভাইয়ের হাতে নৃশংসভাবে খুন হলো খাদিজা খাতুন নামে দুই বছর বয়সী এক শিশু।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর স্কুলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে অভিযুক্ত আহসান হাবীবকে (১২) আটক করেছে পুলিশ।

খাদিজা ওই গ্রামের বাবলু হোসেনের মেয়ে। আর আহসান হাবীব একই গ্রামের সুরুজ হোসেনের ছেলে। সম্পর্কে তারা আপন মামাতো-ফুপাতো ভাইবোন।

স্থানীয়রা জানান, আহসান হাবীব মানসিক ভারসাম্যহীন। মাঝেমধ্যেই গ্রামের লোকজনকে মারধর করে। প্রতিবেশী হওয়ায় বিকালে খাদিজার মা বিউটি খাতুন খাবার কিনে দিতে আহসান হাবীবকে ১০ টাকা দেন। পরে সে শিশু খাদিজাকে কোলে নিয়ে স্থানীয় একটি দোকান থেকে খাবার কিনে দেয়।

এর পর থেকে তাদের কোনো খোঁজ ছিল না। রাত পৌনে ৮টার দিকে বাড়ির অদূরে নির্মাণাধীন একটি বাড়িতে শিশুটির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে।

পাবনার সিনিয়র এএসপি সজীব শাহরীন যুগান্তরকে জানান, শিশুটির মাথায় আঘাতের চিহ্ন ও নির্মাণাধীন ভবনের দেয়ালে রক্তের চিহ্ন দেখে প্রাথমিক ধারণা করছি, শিশুটির মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যায় জড়িত শিশুটির মামাতো ভাই আহসান হাবীবকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

পাবনায় ১২ বছরের শিশুর হাতে দুই বছরের কন্যাশিশু খুন

 চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি 
০৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হত্যা
ছবি

পাবনার চাটমোহরে মামাতো ভাইয়ের হাতে নৃশংসভাবে খুন হলো খাদিজা খাতুন নামে দুই বছর বয়সী এক শিশু। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর স্কুলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে অভিযুক্ত আহসান হাবীবকে (১২) আটক করেছে পুলিশ। 

খাদিজা ওই গ্রামের বাবলু হোসেনের মেয়ে। আর আহসান হাবীব একই গ্রামের সুরুজ হোসেনের ছেলে। সম্পর্কে তারা আপন মামাতো-ফুপাতো ভাইবোন। 

স্থানীয়রা জানান, আহসান হাবীব মানসিক ভারসাম্যহীন। মাঝেমধ্যেই গ্রামের লোকজনকে মারধর করে। প্রতিবেশী হওয়ায় বিকালে খাদিজার মা বিউটি খাতুন খাবার কিনে দিতে আহসান হাবীবকে ১০ টাকা দেন। পরে সে শিশু খাদিজাকে কোলে নিয়ে স্থানীয় একটি দোকান থেকে খাবার কিনে দেয়। 

এর পর থেকে তাদের কোনো খোঁজ ছিল না। রাত পৌনে ৮টার দিকে বাড়ির অদূরে নির্মাণাধীন একটি বাড়িতে শিশুটির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে।

পাবনার সিনিয়র এএসপি সজীব শাহরীন যুগান্তরকে জানান, শিশুটির মাথায় আঘাতের চিহ্ন ও নির্মাণাধীন ভবনের দেয়ালে রক্তের চিহ্ন দেখে প্রাথমিক ধারণা করছি, শিশুটির মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যায় জড়িত শিশুটির মামাতো ভাই আহসান হাবীবকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন