দুটি কিডনিই অকেজো, শিহাবকে বাঁচাতে সাহায্য চান বাবা
jugantor
দুটি কিডনিই অকেজো, শিহাবকে বাঁচাতে সাহায্য চান বাবা

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৩৭:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

শিহাবউদ্দিন (১৫)

হতদরিদ্র এক প্রান্তিক কৃষকের ছেলে শিহাবউদ্দিন (১৫)। তার দুটি কিডনিই অকেজো। শিশু শিহাবের বাড়ি মাদারীপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের নিজ বাজিতপুর গ্রামে। পিতা কবির হাওলাদার একজন দিনমজুর ও প্রান্তিক চাষী এবং মা লিলি বেগম গৃহিণী। কবির হাওলাদারের তিন ছেলের মধ্যে শিহাব ছোট। অন্যের সহায়তায় সে মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। অভাবের কারণে কবির হাওলাদার তার অন্য দুই ছেলেকে লেখাপড়া করাতে পারেননি। তারা দুজনই ঢাকায় দর্জির দোকানে কাজ করে। শিহাবের বাবার কোনো জমিজমা নেই। দুঃখ-কষ্ট আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে রয়েছে তার সংসারে। একবেলা খাবার জোটে তো অন্যবেলা কাটাতে হয় অর্ধাহার বা অনাহারে।

২০২০ সালে বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। তাই লেখাপড়াও বন্ধ থাকায় চলে আসে নিজ বাড়িতে। বাড়িতে এসে গত বছর আগস্ট মাসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে শিহাব। তাকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা শিহাবকে ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন। স্থানীয় কিছু দরদি মানুষের সাহায্য সহযোগিতায় তাকে নিয়ে ভর্তি করা হয় ঢাকার শেরেবাংলা নগর জাতীয় কিডনি রোগ নিরাময় হাসপাতালে। সেখানকার বিশেষজ্ঞ ডা. মো. মিজানুর রহমানের তত্ত্বাবধানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ চিকিৎসকরা নিশ্চিত হন শিহাবের দুটি কিডনিই অকেজো হয়ে গেছে।

এ অবস্থায় শিহাবকে বাঁচাতে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন; যা দিনমজুর পিতা কবির হাওলাদারের পক্ষে জোগাড় করা মোটেই সম্ভব নয়। এরই মধ্যে অর্থের অভাবে শিহাবের চিকিৎসা বন্ধ রয়েছে। ফলে তার শারীরিক অবস্থা দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে। চোখের সামনে সন্তানের এ অবস্থা দেখে গর্ভধারিণী মা লিলি বেগমের চোখের পানি থামছে না। সন্তানের উন্নত চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও দেশের দানশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের হাত পেতেছেন শিহাবের অসহায় পিতা কবির হাওলাদার।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-মো. কবির হাওলাদার, সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর-১৪০১১২০০৩৬২৬৭, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, মস্তফাপুর শাখা, মাদারীপুর। অথবা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন ০১৮৩৫৯৩৬৮১১ নম্বরে।

দুটি কিডনিই অকেজো, শিহাবকে বাঁচাতে সাহায্য চান বাবা

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৭:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শিহাবউদ্দিন (১৫)
শিহাবউদ্দিন (১৫)

হতদরিদ্র এক প্রান্তিক কৃষকের ছেলে শিহাবউদ্দিন (১৫)। তার দুটি কিডনিই অকেজো। শিশু শিহাবের বাড়ি মাদারীপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের নিজ বাজিতপুর গ্রামে। পিতা কবির হাওলাদার একজন দিনমজুর ও প্রান্তিক চাষী এবং মা লিলি বেগম গৃহিণী। কবির হাওলাদারের তিন ছেলের মধ্যে শিহাব ছোট। অন্যের সহায়তায় সে মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। অভাবের কারণে কবির হাওলাদার তার অন্য দুই ছেলেকে লেখাপড়া করাতে পারেননি। তারা দুজনই ঢাকায় দর্জির দোকানে কাজ করে। শিহাবের বাবার কোনো জমিজমা নেই। দুঃখ-কষ্ট আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে রয়েছে তার সংসারে। একবেলা খাবার জোটে তো অন্যবেলা কাটাতে হয় অর্ধাহার বা অনাহারে।

 

২০২০ সালে বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। তাই লেখাপড়াও বন্ধ থাকায় চলে আসে নিজ বাড়িতে। বাড়িতে এসে গত বছর আগস্ট মাসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে শিহাব। তাকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা শিহাবকে ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন। স্থানীয় কিছু দরদি মানুষের সাহায্য সহযোগিতায় তাকে নিয়ে ভর্তি করা হয় ঢাকার শেরেবাংলা নগর জাতীয় কিডনি রোগ নিরাময় হাসপাতালে। সেখানকার বিশেষজ্ঞ ডা. মো. মিজানুর রহমানের তত্ত্বাবধানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ চিকিৎসকরা নিশ্চিত হন শিহাবের দুটি কিডনিই অকেজো হয়ে গেছে।

 

এ অবস্থায় শিহাবকে বাঁচাতে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন; যা দিনমজুর পিতা কবির হাওলাদারের পক্ষে জোগাড় করা মোটেই সম্ভব নয়। এরই মধ্যে অর্থের অভাবে শিহাবের চিকিৎসা বন্ধ রয়েছে। ফলে তার শারীরিক অবস্থা দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে। চোখের সামনে সন্তানের এ অবস্থা দেখে গর্ভধারিণী মা লিলি বেগমের চোখের পানি থামছে না। সন্তানের উন্নত চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও দেশের দানশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের হাত পেতেছেন শিহাবের অসহায় পিতা কবির হাওলাদার।

 

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-মো. কবির হাওলাদার, সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর-১৪০১১২০০৩৬২৬৭, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, মস্তফাপুর শাখা, মাদারীপুর। অথবা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন ০১৮৩৫৯৩৬৮১১ নম্বরে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন