মদপানে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনের মৃত্যু
jugantor
মদপানে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনের মৃত্যু

  যুগান্তর প্রতিবেদন, সোনারগাঁও  

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ২০:০৮:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা প্রতাপেরচর এলাকায় মদপানে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে পরিবারের দাবি- খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা শিল্পনগরী এলাকার সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের ছোটভাই সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান বাবু, চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত গাড়িচালক ও পিরোজপুর জৈনপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে তোফাজ্জল হোসেন ও কাদিরগঞ্জ গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা মহসিন।

এদের মধ্যে শুক্রবার রাতে মহসিন ও তোফাজ্জলের মৃত্যু হয়। শনিবার বিকালে জাহিদ হাসান বাবু মৃত্যুবরণ করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসান বাবু, মহসিন, তোফাজ্জল হোসেনসহ ১০-১২ জনের একটি দল গত বৃহস্পতিবার রাতে সংঘবদ্ধভাবে কেমিক্যালযুক্ত মদপান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাদের ঢাকা ও সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে গাড়িচালক তোফাজ্জল ও ছাত্রলীগ নেতা মহসিন মারা যান। পরে শনিবার সকালে তাদের লাশ দাফন করা হয়। এ ঘটনার পর শনিবার বিকালে সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান বাবু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এলাকাবাসী জানান, অসুস্থ হওয়ার পর সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম বলেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ির সামনে তারা ১০-১২ জন বন্ধু মিলে স্পিড (কোমলপানীয়) ও বিভিন্ন খাবার খায়। ওই খাবারে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। মদপানে তাদের মৃত্যু হলে সঙ্গে সঙ্গে সমস্যার সৃষ্টি হতো। ২৪ ঘণ্টা পর তাদের বিষক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। তবে এলাকায় একটি চক্র প্রচার করে তাদের অতিরিক্ত মদপানে মৃত্যু হয়েছে।

পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সেলিম রেজা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে নানরুটি, গ্রিল ও কোমলপানীয়সহ বিভিন্ন খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাদের মৃত্যু হয়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত মদপানেই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ৪ জন অসুস্থ অবস্থায় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মদপানে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনের মৃত্যু

 যুগান্তর প্রতিবেদন, সোনারগাঁও 
০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা প্রতাপেরচর এলাকায় মদপানে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে পরিবারের দাবি- খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা শিল্পনগরী এলাকার সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের ছোটভাই সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান বাবু, চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত গাড়িচালক ও পিরোজপুর জৈনপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে তোফাজ্জল হোসেন ও কাদিরগঞ্জ গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে  ছাত্রলীগ নেতা মহসিন।

এদের মধ্যে শুক্রবার রাতে মহসিন ও তোফাজ্জলের মৃত্যু হয়। শনিবার বিকালে জাহিদ হাসান বাবু মৃত্যুবরণ করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসান বাবু, মহসিন, তোফাজ্জল হোসেনসহ ১০-১২ জনের একটি দল গত বৃহস্পতিবার রাতে সংঘবদ্ধভাবে কেমিক্যালযুক্ত মদপান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাদের ঢাকা ও সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে গাড়িচালক তোফাজ্জল ও ছাত্রলীগ নেতা মহসিন মারা যান। পরে শনিবার সকালে তাদের লাশ দাফন করা হয়। এ ঘটনার পর শনিবার বিকালে সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান বাবু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এলাকাবাসী জানান, অসুস্থ হওয়ার পর সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম বলেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ির সামনে তারা ১০-১২ জন বন্ধু মিলে স্পিড (কোমলপানীয়) ও বিভিন্ন খাবার খায়। ওই খাবারে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। মদপানে তাদের মৃত্যু হলে সঙ্গে সঙ্গে সমস্যার সৃষ্টি হতো। ২৪ ঘণ্টা পর তাদের বিষক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। তবে এলাকায় একটি চক্র প্রচার করে তাদের অতিরিক্ত মদপানে মৃত্যু হয়েছে। 

পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সেলিম রেজা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে নানরুটি, গ্রিল ও কোমলপানীয়সহ বিভিন্ন খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাদের মৃত্যু হয়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত মদপানেই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ৪ জন অসুস্থ অবস্থায় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন