ফেনীতে মিথ্যা মামলা করায় বাদীর কারাদণ্ড
jugantor
ফেনীতে মিথ্যা মামলা করায় বাদীর কারাদণ্ড

  ফেনী প্রতিনিধি  

১১ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৪২:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

কারাদন্ড

ফেনীতে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় এক ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডেণ্ডিত করেছেন আদালত।

সোমবার বিকালে ফেনী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আদালতের অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইন এ রায় প্রদান করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত করিম উল্লাহ হাজারী ফেনী শহরের মাস্টারপাড়া আব্দুল কাদের হাজারীর ছেলে। পরে তাকে সাজা পরোয়ানমূলে কারাগারে প্রেরণ করেন আদালত।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী সালাহ উদ্দিন ও সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম নান্টু জানান, আসামির সাথে তার প্রতিবেশী করিম উদ্দিন সরদার ও মো. সুমনের বিরোধ থাকায়, করিম উল্লাহ হাজারী বাদী হয়ে ২০১৫ সালে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত শেষে এসআই মো. আজিজ আহাম্মদ অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরবর্তীতে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর নির্দেশক্রমে করিম উল্লাহ হাজারীর বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে মামলা দায়ের করা হয়।

মামলায় ভুক্তভোগী করিম উদ্দিন সরদার ও মো. সুমন সাক্ষ্য প্রদান করেন। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. আজিজ আহাম্মদও সাক্ষ্য প্রদান করেন। আদালতে আসামি করিম উল্লাহ হাজারী উপস্থিত ছিলেন। তার পক্ষে অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম যুক্তিতর্ক শুনানি করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আসামি নিজেও ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আসামি সম্পূর্ণ জ্ঞাতসারে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় আদালত আসামিকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এপিপি নিমাই লাল সূত্রধর।

ফেনীতে মিথ্যা মামলা করায় বাদীর কারাদণ্ড

 ফেনী প্রতিনিধি 
১১ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কারাদন্ড
কারাদন্ড

ফেনীতে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় এক ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডেণ্ডিত করেছেন আদালত।

সোমবার বিকালে ফেনী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আদালতের অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইন এ রায় প্রদান করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত করিম উল্লাহ হাজারী ফেনী শহরের মাস্টারপাড়া আব্দুল কাদের হাজারীর ছেলে। পরে তাকে সাজা পরোয়ানমূলে কারাগারে প্রেরণ করেন আদালত।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী সালাহ উদ্দিন ও সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম নান্টু জানান, আসামির সাথে তার প্রতিবেশী করিম উদ্দিন সরদার ও মো. সুমনের বিরোধ থাকায়, করিম উল্লাহ হাজারী বাদী হয়ে ২০১৫ সালে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত শেষে এসআই মো. আজিজ আহাম্মদ অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরবর্তীতে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর নির্দেশক্রমে করিম উল্লাহ হাজারীর বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে মামলা দায়ের করা হয়।

মামলায় ভুক্তভোগী করিম উদ্দিন সরদার ও মো. সুমন সাক্ষ্য প্রদান করেন। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. আজিজ আহাম্মদও সাক্ষ্য প্রদান করেন। আদালতে আসামি করিম উল্লাহ হাজারী উপস্থিত ছিলেন। তার পক্ষে অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম যুক্তিতর্ক শুনানি করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আসামি নিজেও ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আসামি সম্পূর্ণ জ্ঞাতসারে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় আদালত আসামিকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এপিপি নিমাই লাল সূত্রধর।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন