দ্বিতীয় বিয়ে না দেয়ায় মাকে কুপিয়ে হত্যা, ছেলের ফাঁসি
jugantor
দ্বিতীয় বিয়ে না দেয়ায় মাকে কুপিয়ে হত্যা, ছেলের ফাঁসি

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  

১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:৩৪:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামে দ্বিতীয় বিবাহে সম্মতি না দেয়ায় নিজের মাকে কুপিয়ে হত্যা করায় ছেলে মন্তাজুল আলমকে (৩৬) ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে এই ফাঁসির আদেশ দেন কুড়িগ্রামের বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান।

ঘটনাটি ঘটেছে জেলার রাজারহাট উপজেলার উমর মজিদ ইউনিয়নের পান্থাবাড়ি (সাতভিটা) গ্রামে। ওই গ্রামের সোলায়মান আলীর স্ত্রী মেহেরজান বেগম ওরফে মিনুকে (৫৮) ছেলে মন্তাজুল আলম কুপিয়ে হত্যা করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মন্তাজুল আলম বেকার ও মাদকাসক্ত থাকায় তার প্রথম স্ত্রী সংসার না করেই তালাক দিয়ে চলে যায়। ২০২০ সালের ২০ মার্চ দুপুর ১টা ৪০মিনিটের দিকে মন্তাজুল দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য তার মা মেহেরজান ওরফে মিনুকে জানায়।

ছেলের দ্বিতীয় বিয়েতে সম্মতি না দেয়ায় ঘরের মধ্যে নামাজরত অবস্থায় মন্তাজুল আলম তার মাকে দেশীয় অস্ত্র কুড়াল দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় আসামি মন্তাজুল আলমের বাবা সোলায়মান আলী বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন এবং আসামিপক্ষে ছিলেন লিগ্যাল এইড নিযুক্ত আইনজীবী অ্যাডভোকেট এরশাদুল হক চৌধুরী শাহিন।

দ্বিতীয় বিয়ে না দেয়ায় মাকে কুপিয়ে হত্যা, ছেলের ফাঁসি

 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
১২ জানুয়ারি ২০২১, ০৫:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামে দ্বিতীয় বিবাহে সম্মতি না দেয়ায় নিজের মাকে কুপিয়ে হত্যা করায় ছেলে মন্তাজুল আলমকে (৩৬) ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। 

মঙ্গলবার দুপুরে এই ফাঁসির আদেশ দেন কুড়িগ্রামের বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান। 

ঘটনাটি ঘটেছে জেলার রাজারহাট উপজেলার উমর মজিদ ইউনিয়নের পান্থাবাড়ি (সাতভিটা) গ্রামে। ওই গ্রামের সোলায়মান আলীর স্ত্রী মেহেরজান বেগম ওরফে মিনুকে (৫৮) ছেলে মন্তাজুল আলম কুপিয়ে হত্যা করে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মন্তাজুল আলম বেকার ও মাদকাসক্ত থাকায় তার প্রথম স্ত্রী সংসার না করেই তালাক দিয়ে চলে যায়। ২০২০ সালের ২০ মার্চ দুপুর ১টা ৪০মিনিটের দিকে মন্তাজুল দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য তার মা মেহেরজান ওরফে মিনুকে জানায়। 

ছেলের দ্বিতীয় বিয়েতে সম্মতি না দেয়ায় ঘরের মধ্যে নামাজরত অবস্থায় মন্তাজুল আলম তার মাকে দেশীয় অস্ত্র কুড়াল দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় আসামি মন্তাজুল আলমের বাবা সোলায়মান আলী বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন এবং আসামিপক্ষে ছিলেন লিগ্যাল এইড নিযুক্ত আইনজীবী অ্যাডভোকেট এরশাদুল হক চৌধুরী শাহিন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন