কাদের মির্জার ‘কোটি টাকার' বক্তব্যের প্রতিবাদ বিএনপি মেয়র প্রার্থীর
jugantor
কাদের মির্জার ‘কোটি টাকার' বক্তব্যের প্রতিবাদ বিএনপি মেয়র প্রার্থীর

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৪ জানুয়ারি ২০২১, ২০:০৪:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের মির্জার মিথ্যা-বানোয়াট বক্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী।

নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা চত্বরের সামনে সমাবেশে তিনি বলেন, বসুরহাট পৌরসভার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের মির্জা সাহস করে সত্য কথা বলেন। তবে তিনি সাহস করে মিথ্যা কথা বলাতেই অভ্যস্ত।

কামাল উদ্দিন চৌধুরী বলেন, একজন দায়িত্ববান লোক হয়েও তিনি কীভাবে বলতে পারলেন- তার দল আওয়ামী লীগের এমপিরা (নোয়াখালী-ফেনীর এমপিরা) তাকে হারানোর জন্য বিএনপি মেয়র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য এক কোটি টাকা দিয়েছেন। সাহসী সত্যবচনের লোক এ মিথ্যাবচন প্রচার করে তার নিজের দুর্বলতাই প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেন, নিজেদের দলীয় কোন্দল, দলাদলি, মদ, জুয়া, নারী, টেন্ডার-নিয়োগ বাণিজ্য লুটপাটের সব কিছু তিনি ফাঁস করে দিয়ে নিজেই এখন বেকায়দায় পড়ে সত্য কথা না বলে মিথ্যা কথা বলেই নির্বাচনে জেতার চেষ্টা করছেন। আবদুল কাদের মির্জা যে এক কোটি টাকার কথা বলেছেন, তা তিনি (মির্জা কাদের) প্রমাণ করতে পারলে আমি (কামাল উদ্দিন চৌধুরী) রাজনীতি ছেড়ে চলে যাব। আর তার (মির্জা কাদের) মিথ্যাচারের বিচারের দায়ভার আপনাদের ওপর (উপস্থিত জনতার ওপর) ছেড়ে দিলাম। আমরাও সাহস করে সত্য কথা বলতে চাই- ১৬ তারিখ ভোর থেকে ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত কেন্দ্রে অবস্থান করে আমাদের পক্ষে ফলাফল নিয়ে আসব।

কামাল উদ্দিন চৌধুরী আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়, সব প্রশাসন, নির্বাচন কমিশনারও তাদের। প্রিসাইডিং-পোলিং অফিসার নিয়োগ দিয়েছে প্রশাসন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির উপদেষ্টা জিয়াউল হক জিয়া, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান রিপন, পৌর বিএনপির সভাপতি আবদুল মতিন লিটনসহ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

প্রসঙ্গত, গত দুই দিন বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা তাকে হারানোর জন্য নোয়াখালী ও ফেনীর এমপি (একরামুল করিম চৌধুরী ও নিজাম হাজারী) বসুরহাট পৌরসভা বিএনপির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে তার (মির্জা) শেষ নির্বাচনী সমাবেশে এক কোটি টাকা দেওয়ার কথা বলে তিনি বক্তব্য দিয়েছেন।

কাদের মির্জার ‘কোটি টাকার' বক্তব্যের প্রতিবাদ বিএনপি মেয়র প্রার্থীর

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৪ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের মির্জার মিথ্যা-বানোয়াট বক্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী। 

নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা চত্বরের সামনে সমাবেশে তিনি বলেন, বসুরহাট পৌরসভার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের মির্জা সাহস করে সত্য কথা বলেন। তবে তিনি সাহস করে মিথ্যা কথা বলাতেই অভ্যস্ত।

কামাল উদ্দিন চৌধুরী বলেন, একজন দায়িত্ববান লোক হয়েও তিনি কীভাবে বলতে পারলেন- তার দল আওয়ামী লীগের এমপিরা (নোয়াখালী-ফেনীর এমপিরা) তাকে হারানোর জন্য বিএনপি মেয়র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য এক কোটি টাকা দিয়েছেন। সাহসী সত্যবচনের লোক এ মিথ্যাবচন প্রচার করে তার নিজের দুর্বলতাই প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেন, নিজেদের দলীয় কোন্দল, দলাদলি, মদ, জুয়া, নারী, টেন্ডার-নিয়োগ বাণিজ্য লুটপাটের সব কিছু তিনি ফাঁস করে দিয়ে নিজেই এখন বেকায়দায় পড়ে সত্য কথা না বলে মিথ্যা কথা বলেই নির্বাচনে জেতার চেষ্টা করছেন। আবদুল কাদের মির্জা যে এক কোটি টাকার কথা বলেছেন, তা তিনি (মির্জা কাদের) প্রমাণ করতে পারলে আমি (কামাল উদ্দিন চৌধুরী) রাজনীতি ছেড়ে চলে যাব। আর তার (মির্জা কাদের) মিথ্যাচারের বিচারের দায়ভার আপনাদের ওপর (উপস্থিত জনতার ওপর) ছেড়ে দিলাম। আমরাও সাহস করে সত্য কথা বলতে চাই- ১৬ তারিখ ভোর থেকে ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত কেন্দ্রে অবস্থান করে আমাদের পক্ষে ফলাফল নিয়ে আসব। 

কামাল উদ্দিন চৌধুরী আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়, সব প্রশাসন, নির্বাচন কমিশনারও তাদের। প্রিসাইডিং-পোলিং অফিসার নিয়োগ দিয়েছে প্রশাসন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির উপদেষ্টা জিয়াউল হক জিয়া, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান রিপন, পৌর বিএনপির সভাপতি আবদুল মতিন লিটনসহ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

প্রসঙ্গত, গত দুই দিন বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা তাকে হারানোর জন্য নোয়াখালী ও ফেনীর এমপি (একরামুল করিম চৌধুরী ও নিজাম হাজারী) বসুরহাট পৌরসভা বিএনপির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে তার (মির্জা) শেষ নির্বাচনী সমাবেশে এক কোটি টাকা দেওয়ার কথা বলে তিনি বক্তব্য দিয়েছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : আবদুল কাদের মির্জা

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন