মসজিদ কমিটি নিয়ে সংঘর্ষ, বৃদ্ধের মৃত্যু
jugantor
মসজিদ কমিটি নিয়ে সংঘর্ষ, বৃদ্ধের মৃত্যু

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১৫ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৪৪:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে মসজিদ কমিটি গঠন নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় অসুস্থ হয়ে নজরুল ইসলাম (৬০) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়।

শুক্রবার সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের কাজলা কাশিবাটী মসজিদ প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ মৃত মুসল্লি নজরুল ইসলামের লাশ থানায় নিয়ে গেছে।

মসজিদ কমিটির সদস্যরা জানান, সম্প্রতি সরাসরি ভোটের মাধ্যমে এ কমিটির সভাপতি হন ফজলুর রহমান ও সম্পাদক হন মাহবুবুল আলম। তবে কমিটি গঠনের পরও নিজেদের মধ্যে নতুন গ্রুপিংয়ের সৃষ্টি হয়। এই গ্রুপিং দূর করার জন্য শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে সভাপতি ফজলুর রহমান ও প্রতিপক্ষ সম্পাদক মাহবুবুল আলমসহ তাদের লোকজন বসেন।

এরই একপর্যায়ে কথাকাটাকাটির জেরে মারামারি শুরু হয়। এতে ঘটনাস্থলে আহত হন রুস্তম মোড়ল, শাহেদ মোড়ল, আলামিন, আবুল কালাম ও শাজাহান।

তারা আরও জানান, এ ঘটনার সময় পাইকাড়া গ্রামের মুসল্লি নজরুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

তবে নজরুল ইসলামের ছেলে মসজিদ কমিটির সম্পাদক মাহবুবুল আলম জানান, তার বাবা স্ট্রোক করে মারা গেছেন।

কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, নজরুল ইসলামের লাশ থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি সংঘর্ষে মারা গেছেন নাকি স্ট্রোক করে মারা গেছেন, তা নিশ্চিত করা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ শনিবার সকালে সাতক্ষীরায় পাঠানো হবে।

মসজিদ কমিটি নিয়ে সংঘর্ষ, বৃদ্ধের মৃত্যু

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  
১৫ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে মসজিদ কমিটি গঠন নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় অসুস্থ হয়ে নজরুল ইসলাম (৬০) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়।

শুক্রবার সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের কাজলা কাশিবাটী মসজিদ প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ মৃত মুসল্লি নজরুল ইসলামের লাশ থানায় নিয়ে গেছে। 

মসজিদ কমিটির সদস্যরা জানান, সম্প্রতি সরাসরি ভোটের মাধ্যমে এ কমিটির সভাপতি হন ফজলুর রহমান ও সম্পাদক হন মাহবুবুল আলম। তবে কমিটি গঠনের পরও নিজেদের মধ্যে নতুন গ্রুপিংয়ের সৃষ্টি হয়। এই গ্রুপিং দূর করার জন্য শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে সভাপতি ফজলুর রহমান ও প্রতিপক্ষ সম্পাদক মাহবুবুল আলমসহ তাদের লোকজন বসেন।

এরই একপর্যায়ে কথাকাটাকাটির জেরে মারামারি শুরু হয়। এতে ঘটনাস্থলে আহত হন রুস্তম মোড়ল, শাহেদ মোড়ল, আলামিন, আবুল কালাম ও শাজাহান। 

তারা আরও জানান, এ ঘটনার সময় পাইকাড়া গ্রামের মুসল্লি নজরুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। 

তবে নজরুল ইসলামের ছেলে মসজিদ কমিটির সম্পাদক মাহবুবুল আলম জানান, তার বাবা স্ট্রোক করে মারা গেছেন। 

কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, নজরুল ইসলামের লাশ থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি সংঘর্ষে মারা গেছেন নাকি স্ট্রোক করে মারা গেছেন, তা নিশ্চিত করা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ শনিবার সকালে সাতক্ষীরায় পাঠানো হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন