লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন
jugantor
লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন

  যুগান্তর প্রতিবেদক, ভোলা  

১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২৩:০৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় ঢাকাগামী এমভি ফারহান-৫ লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা কোহিনুর বেগম (৪০) নামের এক যাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দৌলতখান লঞ্চঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত কোহিনুর বেগম ওই উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মো. সালাউদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনের মতো হাতিয়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি ফারহান-৫ লঞ্চটি দৌলতখান লঞ্চঘাটে যাত্রী উঠানোর উদ্দেশ্যে ঘাটে ভেড়ানোর প্রস্তুতি নেয়। এ সময় লঞ্চটি বেপরোয়াগতিতে এসে পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রী কোহিনুর বেগমকে ধাক্কায় দেয়।

এতে তার বাম পা হাঁটু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেলে পাঠান।

দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সিফাত জানান, রোগীর বাম পায়ে আঘাত লেগে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তাকে তাৎক্ষণিক বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়েছে।

দৌলতখান থানার ওসি মো. বজলার রহমান বলেন, নারীটি লঞ্চে উঠতে গিয়ে আহত হয়েছেন। পরে লঞ্চটি যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। তবে আমাদের কাছে এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন

 যুগান্তর প্রতিবেদক, ভোলা 
১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১১:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় ঢাকাগামী এমভি ফারহান-৫ লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা কোহিনুর বেগম (৪০) নামের এক যাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দৌলতখান লঞ্চঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত কোহিনুর বেগম ওই উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মো. সালাউদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনের মতো হাতিয়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি ফারহান-৫ লঞ্চটি দৌলতখান লঞ্চঘাটে যাত্রী উঠানোর উদ্দেশ্যে ঘাটে ভেড়ানোর প্রস্তুতি নেয়। এ সময় লঞ্চটি বেপরোয়াগতিতে এসে পন্টুনে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রী কোহিনুর বেগমকে ধাক্কায় দেয়।

এতে তার বাম পা হাঁটু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেলে পাঠান।

দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সিফাত জানান, রোগীর বাম পায়ে আঘাত লেগে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তাকে তাৎক্ষণিক বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়েছে।

দৌলতখান থানার ওসি মো. বজলার রহমান বলেন, নারীটি লঞ্চে উঠতে গিয়ে আহত হয়েছেন। পরে লঞ্চটি যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। তবে আমাদের কাছে এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন