কোটালীপাড়ায় ১৬ দোকান পুড়ে ছাই
jugantor
কোটালীপাড়ায় ১৬ দোকান পুড়ে ছাই

  কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:১৩:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কোটালীপাড়ায় ১৬ দোকান পুড়ে ছাই

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় আগুনে ১৬টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের।

শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার ভাঙ্গারহাট বাজারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী গোপাল বিশ্বাস জানান, শনিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে সঞ্জয় হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকানের বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

মুহূর্তের মধ্যে আগুন আশপাশের দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন প্রায় ১ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এই সময়ের মধ্যে রিপন বিশ্বাসের ডেকোরেটর দোকান, সমীর বালার পার্সের দোকান, সরোজ বিশ্বাসের ওষুধের দোকান, অপূর্ব মৃধার বিউটি পার্লার, রনি বিশ্বাসের ইলেকট্রনিকস দোকান, সংগীত হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকান, মনোরঞ্জন দাসের সার কীটনাশকের দোকান, সঞ্জয় হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকান, সঞ্জয় বিশ্বাসের ফার্নিচারের দোকানসহ ১৬ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মনোরঞ্জন দাস জানান, এই অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসায়ীদের প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। অধিকাংশ ব্যবসায়ী ধার-দেনা করে ও লোন নিয়ে ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। এখন এসব ব্যবসায়ী সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সর্বানন্দ বৈদ্য।

তারা বলেন, সরকার যদি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সাহায্য না করে বা নতুন করে লোন না দেয়, তা হলে এদের পথে বসতে হবে।

কোটালীপাড়ায় ১৬ দোকান পুড়ে ছাই

 কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কোটালীপাড়ায় ১৬ দোকান পুড়ে ছাই
ছবি: যুগান্তর

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় আগুনে ১৬টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের।

শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার ভাঙ্গারহাট বাজারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী গোপাল বিশ্বাস জানান, শনিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে সঞ্জয় হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকানের বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

মুহূর্তের মধ্যে আগুন আশপাশের দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন প্রায় ১ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এই সময়ের মধ্যে রিপন বিশ্বাসের ডেকোরেটর দোকান, সমীর বালার পার্সের দোকান, সরোজ বিশ্বাসের ওষুধের দোকান, অপূর্ব মৃধার বিউটি পার্লার, রনি বিশ্বাসের ইলেকট্রনিকস দোকান, সংগীত হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকান, মনোরঞ্জন দাসের সার কীটনাশকের দোকান, সঞ্জয় হালদারের ইলেকট্রনিকস দোকান, সঞ্জয় বিশ্বাসের ফার্নিচারের দোকানসহ ১৬ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মনোরঞ্জন দাস জানান, এই অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসায়ীদের প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। অধিকাংশ ব্যবসায়ী ধার-দেনা করে ও লোন নিয়ে ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। এখন এসব ব্যবসায়ী সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সর্বানন্দ বৈদ্য।

তারা বলেন, সরকার যদি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সাহায্য না করে বা নতুন করে লোন না দেয়, তা হলে এদের পথে বসতে হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন