ছাত্রদলের কমিটি প্রত্যাখ্যান করে শ্রীমঙ্গলে বিক্ষোভ
jugantor
ছাত্রদলের কমিটি প্রত্যাখ্যান করে শ্রীমঙ্গলে বিক্ষোভ

  সৈয়দ সালাউদ্দিন, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৫২:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ছাত্রদলের কেন্দ্রঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে জুতা মিছিল ও সমাবেশ করেছেন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

তারা অভিযোগ করেছেন, টাকার বিনিময়ে বিবাহিত ও অছাত্র দিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। জুতা মিছিলের পাশাপাশি বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাজী মুজিব ও ছাত্রদলের সিলেটের বিভাগীয় সমন্বক ওমর ফারুক কাওসারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রদলের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের উদ্যোগে রোববার দুপুরে এই মিছিল এবং প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচি পালিত হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এতে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা এ দুই নেতার ছবি পদদলিত করে প্রতিবাদ জানান। এ সময় তারা রাজপথে তাদের প্রতিহত করারও হুশিয়ারি দেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহদফতর সম্পাদক আজিজুল হক সোহেল স্বাক্ষরিত কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের প্যাডে শ্রীমঙ্গল উপজেলা ও পৌর ছাত্রদলের কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ খবর রাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রোববার দুপুরে শহরে এই বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়।

এ সময় কেন্দ্র ছাত্রদলের বিভাগীয় সমন্বয়ক ওমর ফারুক কাওসারের বিরুদ্ধে মোটা অঙ্কের টাকাবিনিময়ে বিবাহিত ও অছাত্রদের দিয়ে কমিটি অনুমোদন দেওয়ার অভিযোগ করেন নেতাকর্মীরা।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুর রহমান শিপু অভিযোগ করে বলেন, কুখ্যাত স্বর্ণ চোরাকারবারি সোনা মুজিবের (বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য) নিকট থেকে টাকা খেয়ে জেলা কমিটিকে পাশ কাটিয়ে ওমর ফারুক কাওসার এই অবৈধ কমিটি অনুমোদন করেছেন।

এ কমিটি আমরা মেনে নিতে পারি না। তিনি অবিলম্বে এই কমিটি বাতিল করে পরীক্ষিত যোগ্য, দক্ষ ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদল কর্তৃক পুনঃকমিটি গঠনের আহ্বান জানান। হাজী মুজিব বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে সাবেক পৌর যুবলীগের সভাপতি তাজউদ্দিন তাজুকে বিএনপিতে ও তার পরিবারের সদস্যদের যুবদল, ছাত্রদলে পদায়ন করছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

শ্রীমঙ্গল কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক মিজান আহমেদ বলেন, ঘোষিত উপজেলা ছাত্রদলের কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম বিবাহিত। এই কমিটির অধিকাংশকে কেউ চেনে না, তাদের ছাত্রত্ব নেই, অনেকেই আবার ৮ম শ্রেণি পাস।

ঘোষিত কমিটি তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মেনে নেবে না, বরং রাজপথে তাদের প্রতিহত করা হবে। এ বিষয়ে তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রূবেল আহমেদ বলেন, হাজী মুজিবুর রহমান চৌধুরীর মনোনীতদের নিয়ে কেন্দ্র থেকে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। ফলে জেলার অনুমোদন না নেওয়ায় কমিটির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

ছাত্রদলের কমিটি প্রত্যাখ্যান করে শ্রীমঙ্গলে বিক্ষোভ

 সৈয়দ সালাউদ্দিন, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ছাত্রদলের কেন্দ্রঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে জুতা মিছিল ও সমাবেশ করেছেন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

তারা অভিযোগ করেছেন, টাকার বিনিময়ে বিবাহিত ও অছাত্র দিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। জুতা মিছিলের পাশাপাশি বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাজী মুজিব ও ছাত্রদলের সিলেটের বিভাগীয় সমন্বক ওমর ফারুক কাওসারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রদলের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের উদ্যোগে রোববার দুপুরে এই মিছিল এবং প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচি পালিত হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এতে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা এ দুই নেতার ছবি পদদলিত করে প্রতিবাদ জানান। এ সময় তারা রাজপথে তাদের প্রতিহত করারও হুশিয়ারি দেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহদফতর সম্পাদক আজিজুল হক সোহেল স্বাক্ষরিত কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের প্যাডে শ্রীমঙ্গল উপজেলা ও পৌর ছাত্রদলের কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ খবর রাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রোববার দুপুরে শহরে এই বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়।

এ সময় কেন্দ্র ছাত্রদলের বিভাগীয় সমন্বয়ক ওমর ফারুক কাওসারের বিরুদ্ধে মোটা অঙ্কের টাকাবিনিময়ে বিবাহিত ও অছাত্রদের দিয়ে কমিটি অনুমোদন দেওয়ার অভিযোগ করেন নেতাকর্মীরা।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুর রহমান শিপু অভিযোগ করে বলেন, কুখ্যাত স্বর্ণ চোরাকারবারি সোনা মুজিবের (বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য) নিকট থেকে টাকা খেয়ে জেলা কমিটিকে পাশ কাটিয়ে ওমর ফারুক কাওসার এই অবৈধ কমিটি অনুমোদন করেছেন।

এ কমিটি আমরা মেনে নিতে পারি না। তিনি অবিলম্বে এই কমিটি বাতিল করে পরীক্ষিত যোগ্য, দক্ষ ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদল কর্তৃক পুনঃকমিটি গঠনের আহ্বান জানান। হাজী মুজিব বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে সাবেক পৌর যুবলীগের সভাপতি তাজউদ্দিন তাজুকে বিএনপিতে ও তার পরিবারের সদস্যদের যুবদল, ছাত্রদলে পদায়ন করছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

শ্রীমঙ্গল কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক মিজান আহমেদ বলেন, ঘোষিত উপজেলা ছাত্রদলের কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম বিবাহিত। এই কমিটির অধিকাংশকে কেউ চেনে না, তাদের ছাত্রত্ব নেই, অনেকেই আবার ৮ম শ্রেণি পাস।

ঘোষিত কমিটি তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মেনে নেবে না, বরং রাজপথে তাদের প্রতিহত করা হবে। এ বিষয়ে তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রূবেল আহমেদ বলেন, হাজী মুজিবুর রহমান চৌধুরীর মনোনীতদের নিয়ে কেন্দ্র থেকে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। ফলে জেলার অনুমোদন না নেওয়ায় কমিটির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন