ভাড়া না পেয়ে ঘরে তালা: শিশু মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পিবিআই
jugantor
ভাড়া না পেয়ে ঘরে তালা: শিশু মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পিবিআই

  খুলনা ব্যুরো  

১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:৩৬:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ভাড়া না পেয়ে ঘরে তালা: শিশু মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পিবিআই

খুলনায় টাকা না পেয়ে ভাড়াটিয়ার দরজায় তালা ও বন্ধ ঘরের শিশু মৃত্যুর ঘটনায় আদালতে মামলা হয়েছে। এ ঘটনা গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত ড. আতিকুস সামাদ এ আদেশ দেন।

এর আগে সকালে পানিতে ডুবে নিহত ছয় মাসের শিশু নেলিহার বাবা ইমদাদুল হক সাগর বাদী হয়ে মুখ্য মহানগর হাকিম ড. আতিকুস সামাদের আদালতে মামলা করেন। মামলায় বাড়িওয়ালা কুয়েত প্রবাসী নূর ইসলাম ও তার পিতা নওশের আলীকে আসামি করা হয়।

মামলায় বাদী উল্লেখ করেছেন, মাত্র এক মাসের বাড়ি ভাড়া না পেয়ে বাড়িওয়ালার বাবা নওশের আলী তাদের ঘরে অনাধিকার প্রবেশ করে জীবননাশের হুমকি দেন। ঘরে থাকা আসবাবপত্র ক্ষতিসাধন করে প্রধান গেটে তালা লাগিয়ে দেন।

ঘর তালাবদ্ধ থাকায় শিশু পানিতে ডুবে গেলেও তাকে হাসপাতালে নিতে পারেনি, যা চিকিৎসা কাজে বাধা ও হত্যার শামিল।

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এ ব্যাপারে লবণচরা থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ তাদের অভিযোগ গ্রহণ করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়। পরে তারা জানতে পারেন, পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করেনি।

আদালত বাদীর অভিযোগ পর্যালোচনা করে মামলা গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

জানা যায়, এক মাসের ভাড়া বাবদ বকেয়া মাত্র চার হাজার টাকা দিতে না পারায় গত ১০ জানুয়ারি খুলনা নগরীর লবণচরা থানার রিয়াবাজার এলাকায় কাঠমিস্ত্রি ইমদাদুল হকের ঘরে তালা মেরে দেন বাড়িওয়ালা।

গত ১৩ জানুয়ারি ছয় মাসের শিশুকন্যা নেলিহা বালতির পানিতে ডুবে গেলে ঘর তালাবদ্ধ থাকায় তাকে হাসপাতালে নিতে না পারায় তার করুণ মৃত্যু হয়। পরে এলাকাবাসী তালা ভেঙে তাদের উদ্ধার করে। বাদীকে মামলা পরিচালনায় সহায়তা করে মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা।

ভাড়া না পেয়ে ঘরে তালা: শিশু মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পিবিআই

 খুলনা ব্যুরো 
১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০১:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভাড়া না পেয়ে ঘরে তালা: শিশু মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পিবিআই
ফাইল ছবি

খুলনায় টাকা না পেয়ে ভাড়াটিয়ার দরজায় তালা ও বন্ধ ঘরের শিশু মৃত্যুর ঘটনায় আদালতে মামলা হয়েছে। এ ঘটনা গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত ড. আতিকুস সামাদ এ আদেশ দেন।

 এর আগে সকালে পানিতে ডুবে নিহত ছয় মাসের শিশু নেলিহার বাবা ইমদাদুল হক সাগর বাদী হয়ে মুখ্য মহানগর হাকিম ড. আতিকুস সামাদের আদালতে মামলা করেন। মামলায় বাড়িওয়ালা কুয়েত প্রবাসী নূর ইসলাম ও তার পিতা নওশের আলীকে আসামি করা হয়।

মামলায় বাদী উল্লেখ করেছেন, মাত্র এক মাসের বাড়ি ভাড়া না পেয়ে বাড়িওয়ালার বাবা নওশের আলী তাদের ঘরে অনাধিকার প্রবেশ করে জীবননাশের হুমকি দেন। ঘরে থাকা আসবাবপত্র ক্ষতিসাধন করে প্রধান গেটে তালা লাগিয়ে দেন।

ঘর তালাবদ্ধ থাকায় শিশু পানিতে ডুবে গেলেও তাকে হাসপাতালে নিতে পারেনি, যা চিকিৎসা কাজে বাধা ও হত্যার শামিল।

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এ ব্যাপারে লবণচরা থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ তাদের অভিযোগ গ্রহণ করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়। পরে তারা জানতে পারেন, পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করেনি।

আদালত বাদীর অভিযোগ পর্যালোচনা করে মামলা গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

জানা যায়, এক মাসের ভাড়া বাবদ বকেয়া মাত্র চার হাজার টাকা দিতে না পারায় গত ১০ জানুয়ারি খুলনা নগরীর লবণচরা থানার রিয়াবাজার এলাকায় কাঠমিস্ত্রি ইমদাদুল হকের ঘরে তালা মেরে দেন বাড়িওয়ালা।

গত ১৩ জানুয়ারি ছয় মাসের শিশুকন্যা নেলিহা বালতির পানিতে ডুবে গেলে ঘর তালাবদ্ধ থাকায় তাকে হাসপাতালে নিতে না পারায় তার করুণ মৃত্যু হয়। পরে এলাকাবাসী তালা ভেঙে তাদের উদ্ধার করে। বাদীকে মামলা পরিচালনায় সহায়তা করে মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন