সীতাকুণ্ডে গভীর রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতি
jugantor
সীতাকুণ্ডে গভীর রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতি

  সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১৮ জানুয়ারি ২০২১, ২২:০০:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

ডাকাতি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর ইউনিয়নে একই রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ ২১ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে। গত রোববার রাতে পৃথক সময়ে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,রোববার রাত আড়াইটার সময় ১০-১৫ জন মুখোশধারী ডাকাত দল বাউন্ডারি গেট ভেঙে তাজুল ইসলামের বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় ডাকাত দল প্রফেসর আবুল কালামের ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে সদ্য দুবাই থেকে বাড়িতে আসা তার ছোটভাই আবুল হাসানসহ পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি রুমে আটকে রাখে। এ সময় তারা আলমারি ভেঙে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও ২১ ভরি স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। একইভাবে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল রাত সাড়ে ৩টায় ইউনিয়নের মতিউর রহমান সেরাং বাড়ির নুরন্নবীর ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও স্বর্ণের কানের দুল লুট করে নিয়ে যায়।

মুরাদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহেদ হোসেন নিজামী বাবু জানান,গভীর রাতে ১০-১৫ জনের সংঘবদ্ধ ডাকাত দল প্রফেসর আবুল কালামের বাড়িসহ দুই বাড়িতে ডাকাতি করে। এ সময় ডাকাত দল ঘরের লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর এলাকাবাসী ধাওয়া দিলে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিকের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সীতাকুণ্ডে গভীর রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতি

 সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১০:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ডাকাতি
ডাকাতি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর ইউনিয়নে একই রাতে দুই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ ২১ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে। গত রোববার রাতে পৃথক সময়ে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,রোববার রাত আড়াইটার সময় ১০-১৫ জন মুখোশধারী ডাকাত দল বাউন্ডারি গেট ভেঙে তাজুল ইসলামের বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় ডাকাত দল প্রফেসর আবুল কালামের ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে সদ্য দুবাই থেকে বাড়িতে আসা তার ছোটভাই আবুল হাসানসহ পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি রুমে আটকে রাখে। এ সময় তারা আলমারি ভেঙে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও ২১ ভরি স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। একইভাবে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল রাত সাড়ে ৩টায় ইউনিয়নের মতিউর রহমান সেরাং বাড়ির নুরন্নবীর ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও স্বর্ণের কানের দুল লুট করে নিয়ে যায়।

মুরাদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহেদ হোসেন নিজামী বাবু জানান,গভীর রাতে ১০-১৫ জনের সংঘবদ্ধ ডাকাত দল প্রফেসর আবুল কালামের বাড়িসহ দুই বাড়িতে ডাকাতি করে। এ সময় ডাকাত দল ঘরের লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর এলাকাবাসী ধাওয়া দিলে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিকের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন