চায়ের কাপ দিয়ে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর মাথা ফাটিয়ে দিল বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক
jugantor
চায়ের কাপ দিয়ে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর মাথা ফাটিয়ে দিল বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক

  কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি   

১৮ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৫২:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পৌর নির্বাচনে হেরে যাওয়া কাউন্সিলর প্রার্থীর সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছেন বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক। পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রেজাউল ইসলামের সঙ্গে সোমবার সকালে কাজীপাড়া মোড়ে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী রেজাউল জানান, দুর্গাপুর গ্রামের জালাল বিশ্বাসের ছেলে বারুজ তার বিরোধী প্রার্থী পানির বোতল মার্কা প্রতীকের সমর্থক ছিল। ইউনিয়ন পরিষদের বাসিন্দা হয়েও নির্বাচনের শুরু থেকেই বারুজ তার সমর্থকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন চলাকালে বিভিন্ন ধরনের অশান্তি সৃষ্টি করেছে এই বারুজ।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর বারুজ পথে দেখলেই নানাভাবে কটূক্তি করে। সোমবার সকালে দুর্গাপুর শাপলা চত্বরে চা পান করার সময় বারুজ উস্কানিমূলক কথা বলেন। এর প্রতিবাদ করায় বারুজ হাতে থাকা চায়ের কাপ দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে। এতে তার মাথা ফেটে যায়। পরবর্তীতে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে মাথায় ৫টি সেলাই দেয়া হয়।

কুমারখালী থানার ওসি মো. মজিবুর রহমান জানান, কাউন্সিলর প্রার্থীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটছে। ভুক্তভোগীর অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চায়ের কাপ দিয়ে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর মাথা ফাটিয়ে দিল বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক

 কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  
১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পৌর নির্বাচনে হেরে যাওয়া কাউন্সিলর প্রার্থীর সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছেন বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক। পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রেজাউল ইসলামের সঙ্গে সোমবার সকালে কাজীপাড়া মোড়ে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী রেজাউল জানান, দুর্গাপুর গ্রামের জালাল বিশ্বাসের ছেলে বারুজ তার বিরোধী প্রার্থী পানির বোতল মার্কা প্রতীকের সমর্থক ছিল। ইউনিয়ন পরিষদের বাসিন্দা হয়েও নির্বাচনের শুরু থেকেই বারুজ তার সমর্থকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন চলাকালে বিভিন্ন ধরনের অশান্তি সৃষ্টি করেছে এই বারুজ।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর বারুজ পথে দেখলেই নানাভাবে কটূক্তি করে। সোমবার সকালে দুর্গাপুর শাপলা চত্বরে চা পান করার সময় বারুজ উস্কানিমূলক কথা বলেন। এর প্রতিবাদ করায় বারুজ হাতে থাকা চায়ের কাপ দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে। এতে তার মাথা ফেটে যায়। পরবর্তীতে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে মাথায় ৫টি সেলাই দেয়া হয়।

কুমারখালী থানার ওসি মো. মজিবুর রহমান জানান, কাউন্সিলর প্রার্থীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটছে। ভুক্তভোগীর অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন