ইউএনওর হাত থেকে বাঁচতে মোবাইল রেখেই দৌড় দিল দালাল!
jugantor
ইউএনওর হাত থেকে বাঁচতে মোবাইল রেখেই দৌড় দিল দালাল!

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১৯ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৫০:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ইউএনওর হাত থেকে বাঁচতে মোহাম্মদ রিপন নামে ভূমি অফিসের এক দালাল নিজের দুইটি মোবাইল রেখেই পালিয়ে গেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার চিকনদণ্ডী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এ ঘটনা ঘটে। কথিত ভূমি অফিসের অভিযুক্ত দালাল রিপন উক্ত ইউনিয়নের লালিয়াহাট এলাকার বড় মিরাপাড়ার মোহাম্মদ ফোরকানের ছেলে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুহুল আমিন বলেন, পূর্বঘোষণা ছাড়াই চিকনদণ্ডী ইউনিয়ন ভূমি অফিস পরিদর্শনে যাই। আমাকে দেখেই তড়িঘড়ি করে এক যুবক বের হয়ে যাওয়ার সময় তাকে ধরে ফেলি।

এ সময় তার হাতে থাকা খাজনা পরিশোধের দুইটা দাখিলার ব্যাপারে জানতে চাইলে তার চাচাতো ভাই রাসেল নামে এক ব্যক্তির বলে জানান।

পরে রাসেলকে ভূমি অফিসে ডেকে আনা হয়। ওই সময় রাসেল জানান, তিনি শিকারপুরের মোর্শেদ নামে এক লোককে খাজনা পরিশোধের জন্য ৭ হাজার টাকা দিয়েছেন। ওই লোক রিপনকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা দিয়ে ভূমি অফিসে পাঠিয়েছে।

এসব কথা বলার একপর্যায়ে ভূমি অফিসের দালাল রিপন তার ব্যবহৃত দুইটি মোবাইল ফেলেই দৌড় দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে রিপনের মোবাইল দুইটি জব্দ করা হয় বলে জানান ইউএনও।

ইউএনওর হাত থেকে বাঁচতে মোবাইল রেখেই দৌড় দিল দালাল!

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১৯ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ইউএনওর হাত থেকে বাঁচতে মোহাম্মদ রিপন নামে ভূমি অফিসের এক দালাল নিজের দুইটি মোবাইল রেখেই পালিয়ে গেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার চিকনদণ্ডী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এ ঘটনা ঘটে। কথিত ভূমি অফিসের অভিযুক্ত দালাল রিপন উক্ত ইউনিয়নের লালিয়াহাট এলাকার বড় মিরাপাড়ার মোহাম্মদ ফোরকানের ছেলে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুহুল আমিন বলেন, পূর্বঘোষণা ছাড়াই চিকনদণ্ডী ইউনিয়ন ভূমি অফিস পরিদর্শনে যাই। আমাকে দেখেই তড়িঘড়ি করে এক যুবক বের হয়ে যাওয়ার সময় তাকে ধরে ফেলি।

এ সময় তার হাতে থাকা খাজনা পরিশোধের দুইটা দাখিলার ব্যাপারে জানতে চাইলে তার চাচাতো ভাই রাসেল নামে এক ব্যক্তির বলে জানান।

পরে রাসেলকে ভূমি অফিসে ডেকে আনা হয়। ওই সময় রাসেল জানান, তিনি শিকারপুরের মোর্শেদ নামে এক লোককে খাজনা পরিশোধের জন্য ৭ হাজার টাকা দিয়েছেন। ওই লোক রিপনকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা দিয়ে ভূমি অফিসে পাঠিয়েছে।

এসব কথা বলার একপর্যায়ে ভূমি অফিসের দালাল রিপন তার ব্যবহৃত দুইটি মোবাইল ফেলেই দৌড় দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে রিপনের মোবাইল দুইটি জব্দ করা হয় বলে জানান ইউএনও।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন