জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা
jugantor
জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা

  কক্সবাজার প্রতিনিধি  

২০ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৩৮:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা

কক্সবাজার সদর উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মা ও মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ইসলামাবাদের চরপাড়া রাবার ড্যাম এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ওই এলাকার আজিজুল হক বাবুর্চির স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩২) ও তার মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস (১৩)। জান্নাতুল ফেরদৌস জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জমির বিরোধ নিয়ে একই এলাকার জাফর আলমের ছেলে আবুল কালামের (৩৫) সঙ্গে তাদের বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার রাতে মারামারির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আবুল কালামের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র নিয়ে রাশেদা বেগম ও তার মেয়েকে এলোপাতাড়ি কোপায়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যায় রাশেদা বেগম।

পরে মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। এ সময় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ধারালো কিরিচ উদ্ধার করলেও অভিযুক্ত বা হত্যাকারী আবুল কালামসহ কাউকে আটক করতে পারেনি। তবে গ্রেফতার অভিযান চলছে বলে দাবি করে পুলিশ।

ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি আব্দুল হালিম জানান, হত্যাকাণ্ডের পর পরই হত্যাকারীরা গা ঢাকা দিয়েছে। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে অপরাধীরা আটক হবে বলে তিনি জানান।

তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালে চলাচলের রাস্তা সীমানা বন্ধ করা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। আজিজুল হকের দাবি, নিজের ক্রয়কৃত জায়গায় ঘেরা দিতে গেলে বাধা দেয় আবুল কালাম। এতে ঘটনার সূত্রপাত হয়েছে।

জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা

 কক্সবাজার প্রতিনিধি 
২০ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা
ফাইল ছবি

কক্সবাজার সদর উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মা ও মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ইসলামাবাদের চরপাড়া রাবার ড্যাম এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ওই এলাকার আজিজুল হক বাবুর্চির স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩২) ও তার মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস (১৩)। জান্নাতুল ফেরদৌস জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জমির বিরোধ নিয়ে একই এলাকার জাফর আলমের ছেলে আবুল কালামের (৩৫) সঙ্গে তাদের বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার রাতে মারামারির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আবুল কালামের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র নিয়ে রাশেদা বেগম ও তার মেয়েকে এলোপাতাড়ি কোপায়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যায় রাশেদা বেগম।

পরে মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। এ সময় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ধারালো কিরিচ উদ্ধার করলেও অভিযুক্ত বা হত্যাকারী আবুল কালামসহ কাউকে আটক করতে পারেনি। তবে গ্রেফতার অভিযান চলছে বলে দাবি করে পুলিশ।

ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি আব্দুল হালিম জানান, হত্যাকাণ্ডের পর পরই হত্যাকারীরা গা ঢাকা দিয়েছে। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে অপরাধীরা আটক হবে বলে তিনি জানান।

তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালে চলাচলের রাস্তা সীমানা বন্ধ করা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। আজিজুল হকের দাবি, নিজের ক্রয়কৃত জায়গায় ঘেরা দিতে গেলে বাধা দেয় আবুল কালাম। এতে ঘটনার সূত্রপাত হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন