বিচারককে ঘুষ দিতে গেলেন এসআই, ক্লোজড
jugantor
বিচারককে ঘুষ দিতে গেলেন এসআই, ক্লোজড

  সিলেট ব্যুরো  

২০ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৩২:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

এসআই রাজা মিয়া

সিলেটের জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারককে ঘুষ দেয়ার চেষ্টা করেন জকিগঞ্জ থানার এসআই রাজা মিয়া।

ম্যাজিস্ট্রেট তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। পরে করজোড়ে ক্ষমা চেয়ে পার পান। মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটে। পরদিন বুধবার তাকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনে নিয়ে আসা হয়।

ক্লোজ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. লুৎফর রহমান।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এসআই রাজা মিয়া একটি মামলার এক আসামিকে বাদ দিয়ে তিন আসামির বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এ সময় আদালতের বিচারক একজন আসামিকে কেন বাদ দেওয়া হয়েছে জানতে চেয়ে মামলার বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে শুনানির দিন ধার্য করেন। গত মঙ্গলবার ছিল শুনানির ধার্য তারিখ।

ওইদিন এসআই রাজা মিয়া অনুমতি ছাড়াই বিচারক আনোয়ার হোসেন সাগরের খাস কামরায় ঢুকে তাকে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় বিচারক কৌশলে এসআই রাজা মিয়াকে এজলাসে নিয়ে আসেন। সেখানে আইনজীবী ও উপস্থিত লোকজনের সামনে এসআই রাজা মিয়াকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এ সময় এসআই রাজা মিয়া কান্নাকাটি শুরু করেন এবং করজোড়ে ক্ষমা চান। পরে রাত ৮টার দিকে জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আবদুন নাসের ও জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় বিভাগীয় দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়ার শর্তে তাকে মুক্ত করেন। এ অভিযোগে বুধবার এসআই রাজা মিয়াকে সিলেট পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

বিচারককে ঘুষ দিতে গেলেন এসআই, ক্লোজড

 সিলেট ব্যুরো 
২০ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এসআই রাজা মিয়া
এসআই রাজা মিয়া। ফাইল ছবি

সিলেটের জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারককে ঘুষ দেয়ার চেষ্টা করেন জকিগঞ্জ থানার এসআই রাজা মিয়া।

ম্যাজিস্ট্রেট তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। পরে করজোড়ে ক্ষমা চেয়ে পার পান। মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটে। পরদিন বুধবার তাকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনে নিয়ে আসা হয়। 

ক্লোজ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. লুৎফর রহমান।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এসআই রাজা মিয়া একটি মামলার এক আসামিকে বাদ দিয়ে তিন আসামির বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এ সময় আদালতের বিচারক একজন আসামিকে কেন বাদ দেওয়া হয়েছে জানতে চেয়ে মামলার বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে শুনানির দিন ধার্য করেন। গত মঙ্গলবার ছিল শুনানির ধার্য তারিখ। 

ওইদিন এসআই রাজা মিয়া অনুমতি ছাড়াই বিচারক আনোয়ার হোসেন সাগরের খাস কামরায় ঢুকে তাকে ঘুষ দেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় বিচারক কৌশলে এসআই রাজা মিয়াকে এজলাসে নিয়ে আসেন। সেখানে আইনজীবী ও উপস্থিত লোকজনের সামনে এসআই রাজা মিয়াকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এ সময় এসআই রাজা মিয়া কান্নাকাটি শুরু করেন এবং করজোড়ে ক্ষমা চান। পরে রাত ৮টার দিকে জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আবদুন নাসের ও জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় বিভাগীয় দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়ার শর্তে তাকে মুক্ত করেন। এ অভিযোগে বুধবার এসআই রাজা মিয়াকে সিলেট পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন