স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি, যুবক আটক
jugantor
স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি, যুবক আটক

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২০ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৫৪:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ে স্ত্রীর মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছেন বাবু মিয়া নামে এক যুবক। পরে অবৈধ অস্ত্রসহ বাবু মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

বুধবার বিকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুয়াপুর গ্রামে। এ ব্যাপারে অস্ত্র আইনে ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সুয়াপুর গ্রামের বাবু মিয়া নামে বুধবার বিকাল ৪টার দিকে স্ত্রী রওশন আরার সঙ্গে পরিবারিক কলহ হয়। এর জের ধরে স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করার হুমকি দেয়। এ সময় তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে সুয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হাফিজুর রহমান সোহরাবকে বিষয়টি অবহিত করেন।

মো. হাফিজুর রহমান সোহরাব ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশপ্রধান (দফাদার) মো. আব্দুর রহিমসহ কয়েকজন গ্রামপুলিশ পাঠিয়ে জনতার হাতে পিস্তলসহ আটক বাবু মিয়া নামের ওই যুবককে বেঁধে ইউনিয়ন পরিষদে আনা হয়। এরপর ধামরাই থানার সদ্য যোগদানকারী ওসি মো. আতিকুর রহমানকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠান।

গৃহবধূ রওশনআরা বলেন, আমার সঙ্গে আমার স্বামীর ঝগড়াঝাঁটি হয়। এরই এক পর্যায়ে তিনি আমার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আমাকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেয়। আমি প্রাণের ভয়ে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন আমাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে এসে পিস্তলসহ আমার স্বামীকে আটক করে চেয়ারম্যানকে খবর দেয়। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাব বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে চৌকিদার-দফাদার পাঠিয়ে পিস্তলসহ ওই যুবককে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসি। পরে ধামরাই থানার ওসি আতিকুর রহমানকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে পিস্তলসহ ওই যুবককে থানায় নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে ওসি মো. আতিকুর রহমান বলেন, ওই যুবককে গ্রেফতার করে থানায় আনা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি, যুবক আটক

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২০ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ে স্ত্রীর মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছেন বাবু মিয়া নামে এক যুবক। পরে অবৈধ অস্ত্রসহ বাবু মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

বুধবার বিকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুয়াপুর গ্রামে। এ ব্যাপারে অস্ত্র আইনে ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সুয়াপুর গ্রামের বাবু মিয়া নামে বুধবার বিকাল ৪টার দিকে স্ত্রী রওশন আরার সঙ্গে পরিবারিক কলহ হয়। এর জের ধরে স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করার হুমকি দেয়। এ সময় তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে সুয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হাফিজুর রহমান সোহরাবকে বিষয়টি অবহিত করেন।

মো. হাফিজুর রহমান সোহরাব ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশপ্রধান (দফাদার) মো. আব্দুর রহিমসহ কয়েকজন গ্রামপুলিশ পাঠিয়ে জনতার হাতে পিস্তলসহ আটক বাবু মিয়া নামের ওই যুবককে বেঁধে ইউনিয়ন পরিষদে আনা হয়। এরপর ধামরাই থানার সদ্য যোগদানকারী ওসি মো. আতিকুর রহমানকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠান।

গৃহবধূ রওশনআরা বলেন, আমার সঙ্গে আমার স্বামীর ঝগড়াঝাঁটি হয়। এরই এক পর্যায়ে তিনি আমার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আমাকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেয়। আমি প্রাণের ভয়ে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন আমাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে এসে পিস্তলসহ আমার স্বামীকে আটক করে চেয়ারম্যানকে খবর দেয়। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাব বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে চৌকিদার-দফাদার পাঠিয়ে পিস্তলসহ ওই যুবককে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসি। পরে ধামরাই থানার ওসি আতিকুর রহমানকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে পিস্তলসহ ওই যুবককে থানায় নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে ওসি মো. আতিকুর রহমান বলেন, ওই যুবককে গ্রেফতার করে থানায় আনা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন