ভালুকায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ঠিকাদারের মালামাল লুট, চালকসহ ক্রেন আটক
jugantor
ভালুকায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ঠিকাদারের মালামাল লুট, চালকসহ ক্রেন আটক

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২২ জানুয়ারি ২০২১, ২১:০৬:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় নৈশ প্রহরীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ঠিকাদারের ৫০ লাখ টাকা মূল্যের প্যালোডার মেশিন জোরপূর্বক লো-ভেড কাম ক্রেনে করে নিয়ে যাওয়ার সময় ব্যারিকেড চালককে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা। শুক্রবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার মামারিশপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ফোরলেন সড়কের ঠিকাদার প্রোজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেডের (পিবিএল) ৫০ লাখ টাকা মূল্যের প্যালোডার মেশিন জোরপূর্বক লো-ভেড কাম ক্রেনে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন ওই চালক। এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, জয়বেদপুর-ময়মনসিংহ ফোরলেন সড়কের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রোজেক্ট বিল্ডার্স। ফোরলেন সড়কে নির্মাণ কাজের শেষের দিকে তাদের কার্যাদেশ বাতিল করে দেয়া হয়। কার্যাদেশ বাতিল হয়ে যাওয়ার পর কয়েক কোটি টাকা মূল্যের মেশিনারিজ, ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাসসহ মূল্যবান মালামাল মহাসড়কের পাশে মামারিশপুর এলাকায় স্টেক ইয়ার্ডে ফেলে রেখে যায়। প্রায় ৬/৭ বছর যাবত এ সব মালামাল ওই অফিসে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

ঘটনার রাতে উপজেলার কাঠালী গ্রামের মৃত আবুল হোসেন মিলনের ছেলে অস্ত্র মামলায় সাজা খেটে আসা ফয়েজ আহম্মেদ খান মিশু (৩৫) ১০-১৫ জন লোকসহ লো-ভেডকাম ক্রেন নিয়ে পিবিএলের স্টেক ইয়ার্ড অফিসে প্রবেশ করে। তারা নৈশ প্রহরীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে প্যালোডার মেশিন লো-ভেড কাম ক্রেনে তোলার সময় স্থানীয় লোকজন খোঁজ পেয়ে রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে রাস্তা ব্যারিকেড দেয়।

এ সময় মিশু অস্ত্র উঁচিয়ে ভয় দেখালে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তাদেরকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে লো-ভেডকাম ক্রেন নিয়ে মিশু তার দল বল নিয়ে বিকল্প রাস্তায় যাওয়ার সময় মামারিশপুর এলাকায় হারুনের হ্যাচারির সামনে লো-ভেড কাম ক্রেনটি মাটির রাস্তায় আটকে গেলে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় একটি মোটর সাইকেল, লো-ভেড কাম ক্রেনসহ ড্রাইভার শফিকুল ইসলামকে (৩০) পুলিশ আটক করে।

এ ঘটনায় পিবিএল কোম্পানির প্রশাসনিক কর্মকর্তা সৈয়দ আহসান আহম্মেদ বাদী হয়ে দুই জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ১০/১৫ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।

স্থানীয় চায়ের দোকানদার সাইফুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সময় মিশু ট্রাক, মোটরসাইকেলযোগে ১০-১৫ জন লোক নিয়ে পিবিএল কোম্পানির সাইড অফিসের ভিতরে ঢুকে। ক্রেন মেশিন দিয়ে প্যালোডার মেশিন ট্রাকে তুলার সময় আমরা রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে ব্যারিকেড দেয়। মিশু আমাদের দিকে অস্ত্র উঁচিয়ে ভয় দেখালে আমরা ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে সে বিকল্প রাস্তা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাক ও মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যায়।

আটককৃত ড্রাইভার শফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার রাতে মিশু আমাকে ফোন করে বলে লো-ভেড কাম ক্রেনটি মামারিশপুর এলাকায় নিয়ে আসার জন্য। আমি ক্রেনটি নিয়ে সেখানে আসলে আমাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ক্রেনের ভিতরে আটকিয়ে রেখে আমার হেলপার সুমনকে মারধর করে মিশু তার ড্রাম ট্রাকের ড্রাইভার দিয়ে মেশিনটি তুলার চেষ্টা করে।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় একটি চুরি মামলা হয়েছে এবং চুরি হওয়া মালামাল জব্দ করা হয়েছে। একটি মোটরসাইকেল, লো-ভেডকাম ক্রেনসহ ড্রাইভারকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরার চেষ্টা চলছে।

ভালুকায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ঠিকাদারের মালামাল লুট, চালকসহ ক্রেন আটক

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় নৈশ প্রহরীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ঠিকাদারের ৫০ লাখ টাকা মূল্যের প্যালোডার মেশিন জোরপূর্বক লো-ভেড কাম ক্রেনে করে নিয়ে যাওয়ার সময় ব্যারিকেড চালককে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা। শুক্রবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার মামারিশপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ফোরলেন সড়কের ঠিকাদার প্রোজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেডের (পিবিএল) ৫০ লাখ টাকা মূল্যের প্যালোডার মেশিন জোরপূর্বক লো-ভেড কাম ক্রেনে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন ওই চালক। এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, জয়বেদপুর-ময়মনসিংহ ফোরলেন সড়কের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রোজেক্ট বিল্ডার্স। ফোরলেন সড়কে নির্মাণ কাজের শেষের দিকে তাদের কার্যাদেশ বাতিল করে দেয়া হয়। কার্যাদেশ বাতিল হয়ে যাওয়ার পর কয়েক কোটি টাকা মূল্যের মেশিনারিজ, ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাসসহ মূল্যবান মালামাল মহাসড়কের পাশে মামারিশপুর এলাকায় স্টেক ইয়ার্ডে ফেলে রেখে যায়। প্রায় ৬/৭ বছর যাবত এ সব মালামাল ওই অফিসে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

ঘটনার রাতে উপজেলার কাঠালী গ্রামের মৃত আবুল হোসেন মিলনের ছেলে অস্ত্র মামলায় সাজা খেটে আসা ফয়েজ আহম্মেদ খান মিশু (৩৫) ১০-১৫ জন লোকসহ লো-ভেডকাম ক্রেন নিয়ে পিবিএলের স্টেক ইয়ার্ড অফিসে প্রবেশ করে। তারা নৈশ প্রহরীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে প্যালোডার মেশিন লো-ভেড কাম ক্রেনে তোলার সময় স্থানীয় লোকজন খোঁজ পেয়ে রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে রাস্তা ব্যারিকেড দেয়।

এ সময়  মিশু অস্ত্র উঁচিয়ে ভয় দেখালে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তাদেরকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে লো-ভেডকাম ক্রেন নিয়ে মিশু তার দল বল নিয়ে বিকল্প রাস্তায় যাওয়ার সময় মামারিশপুর এলাকায় হারুনের হ্যাচারির সামনে লো-ভেড কাম ক্রেনটি মাটির রাস্তায় আটকে গেলে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় একটি মোটর সাইকেল, লো-ভেড কাম ক্রেনসহ ড্রাইভার শফিকুল ইসলামকে (৩০) পুলিশ আটক করে।

এ ঘটনায় পিবিএল কোম্পানির প্রশাসনিক কর্মকর্তা সৈয়দ আহসান আহম্মেদ বাদী হয়ে দুই জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ১০/১৫ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।

স্থানীয় চায়ের দোকানদার সাইফুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সময় মিশু ট্রাক, মোটরসাইকেলযোগে ১০-১৫ জন লোক নিয়ে পিবিএল কোম্পানির সাইড অফিসের ভিতরে ঢুকে। ক্রেন মেশিন দিয়ে প্যালোডার মেশিন ট্রাকে তুলার সময় আমরা রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে ব্যারিকেড দেয়। মিশু আমাদের দিকে অস্ত্র উঁচিয়ে ভয় দেখালে আমরা ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে সে বিকল্প রাস্তা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাক ও মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যায়।

আটককৃত ড্রাইভার শফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার রাতে মিশু আমাকে ফোন করে বলে লো-ভেড কাম ক্রেনটি মামারিশপুর এলাকায় নিয়ে আসার জন্য। আমি ক্রেনটি নিয়ে সেখানে আসলে আমাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ক্রেনের ভিতরে আটকিয়ে রেখে আমার হেলপার সুমনকে মারধর করে মিশু তার ড্রাম ট্রাকের ড্রাইভার দিয়ে মেশিনটি তুলার চেষ্টা করে।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় একটি চুরি মামলা হয়েছে এবং চুরি হওয়া মালামাল জব্দ করা হয়েছে। একটি মোটরসাইকেল, লো-ভেডকাম ক্রেনসহ ড্রাইভারকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরার চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন