ধান খাওয়ায় গরু পিটিয়ে মারল তারা
jugantor
ধান খাওয়ায় গরু পিটিয়ে মারল তারা

  ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৪ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৪৯:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ছাতকে ধান খাওয়ায় একটি গাভীকে দড়ি দিয়ে পায় বেঁধে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে। রোববার বিকালে উপজেলার কালারুকা ইউপির রায়সন্তোষপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দিনমজুর মাহমুদুর রহমান বাদী হয়ে ছয়জনের নামে থানায় লিখিত করেছেন। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনা নিয়ে উপজেলাজুড়েই ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে।

জানা গেছে, রোববার বিকালে ওই গ্রামের আমন জমিতে দিনমজুর মাহমুদুর রহমানের একটি গাভী একই গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে সমরাজ আলীর ধান খেয়ে ফেলে। এ সময় জমির মালিক সমরাজ, হাসনাত ও সাদিক মিয়ার নেতৃত্বে দড়ি দিয়ে ৪ পা বেঁধে ৫-৬ জন মিলে লাঠি দিয়ে গরুটিকে পিটিয়ে ঘটনাস্থলে মেরে ফেলেছে।


গরুর মালিক মাহমুদুর রহমান জানান, গাভী গরুটি তার একমাত্র সম্বল ছিল। অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় গরুটি হত্যা করায় তার ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

এ ব্যাপারে থানার এসআই আবু তালেব এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ধান খাওয়ায় গরু পিটিয়ে মারল তারা

 ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ছাতকে ধান খাওয়ায় একটি গাভীকে দড়ি দিয়ে পায় বেঁধে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে। রোববার বিকালে উপজেলার কালারুকা ইউপির রায়সন্তোষপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দিনমজুর মাহমুদুর রহমান বাদী হয়ে ছয়জনের নামে থানায় লিখিত করেছেন। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনা নিয়ে উপজেলাজুড়েই ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে।

জানা গেছে, রোববার বিকালে ওই গ্রামের আমন জমিতে দিনমজুর মাহমুদুর রহমানের একটি গাভী একই গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে সমরাজ আলীর ধান খেয়ে ফেলে। এ সময় জমির মালিক সমরাজ, হাসনাত ও সাদিক মিয়ার নেতৃত্বে দড়ি দিয়ে ৪ পা বেঁধে ৫-৬ জন মিলে লাঠি দিয়ে গরুটিকে পিটিয়ে ঘটনাস্থলে মেরে ফেলেছে।


গরুর মালিক মাহমুদুর রহমান জানান, গাভী গরুটি তার একমাত্র সম্বল ছিল। অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় গরুটি হত্যা করায় তার ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। 

এ ব্যাপারে থানার এসআই  আবু তালেব এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন