মসজিদ কমিটি নিয়ে মাদ্রাসার ভেতরে সংঘর্ষ, আহত ৪
jugantor
মসজিদ কমিটি নিয়ে মাদ্রাসার ভেতরে সংঘর্ষ, আহত ৪

  সিলেট ব্যুরো  

২৭ জানুয়ারি ২০২১, ২১:০৮:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেট নগরীর নয়াসড়ক জামেয়া মসজিদের কমিটি নিয়ে সংঘর্ষে ৪ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার সাড়ে ১২টার দিকে দু’পক্ষকে নিয়ে সমঝোতার মাধ্যমে জামেয়া ইসলামিয়া হুসাইনিয়া মাদ্রাসার ভেতরে কমিটি গঠন করার সময় উভয়পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় কয়েকজন আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি এসএম আবু ফরহাদ যুগান্তরকে জানান, মাদ্রাসার কমিটি গঠন কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ ছিল। বিরোধ থাকাবস্থায় কমিটি গঠন করতে বসেছিলেন সবাই। এ সময় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ৪ জন আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মাদ্রাসা মার্কেটের ব্যবসায়ী কবীর উদ্দিন জানান, নয়াসড়ক জামেয়া মসজিদের কমিটি নিয়ে বিরোধ চলছিল দু’পক্ষের। মসজিদের জায়গা না থাকায় মাদ্রাসার ভেতরে কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে সভা বসে। এ সময় দু’পক্ষের সংঘর্ষ হয়। তিনি জানান, মাদ্রাসার সঙ্গে এ ঘটনার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

মসজিদ কমিটি নিয়ে মাদ্রাসার ভেতরে সংঘর্ষ, আহত ৪

 সিলেট ব্যুরো 
২৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেট নগরীর নয়াসড়ক জামেয়া মসজিদের কমিটি নিয়ে সংঘর্ষে ৪ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার সাড়ে ১২টার দিকে দু’পক্ষকে নিয়ে সমঝোতার মাধ্যমে জামেয়া ইসলামিয়া হুসাইনিয়া মাদ্রাসার ভেতরে কমিটি গঠন করার সময় উভয়পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় কয়েকজন আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি এসএম আবু ফরহাদ যুগান্তরকে জানান, মাদ্রাসার কমিটি গঠন কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ ছিল। বিরোধ থাকাবস্থায় কমিটি গঠন করতে বসেছিলেন সবাই। এ সময় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ৪ জন আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

মাদ্রাসা মার্কেটের ব্যবসায়ী কবীর উদ্দিন জানান, নয়াসড়ক জামেয়া মসজিদের কমিটি নিয়ে বিরোধ চলছিল দু’পক্ষের। মসজিদের জায়গা না থাকায় মাদ্রাসার ভেতরে কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে সভা বসে। এ সময় দু’পক্ষের সংঘর্ষ হয়। তিনি জানান, মাদ্রাসার সঙ্গে এ ঘটনার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন