বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে ধর্ষণ
jugantor
বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে ধর্ষণ

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০৫:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

বড় বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে ধর্ষণ

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় বড় বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে জাকিম আলী নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার ভুক্তভোগী ওই শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার রাতে জাকিমের বিরুদ্ধে মদন থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন ওই শিশুটির বাবা। তবে এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত জাকিম আলী। জাকিম একই গ্রামের সমুজ আলীর ছেলে।

ধর্ষণের স্বীকার মেয়েটির বাবা বলেন, প্রতিবেশী সমুর আলীর ছেলে জাকিম আমার বড় ভাইয়ের মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমি এতে অসম্মতি প্রকাশ করি। এক মাস আগে আমার ভাতিজিকে অন্যত্রে বিয়ে দিয়েছি। এর পর থেকেই জাকিম আমাদের দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে আসছিল।

গত ২১ জানুয়ারি রাতে আমি জমিতে সেচ দিয়ে হাওর থেকে বাড়িতে ফিরছিলাম। এ সময় দেখতে পাই বাড়ির সামনের জমিতে অচেতন অবস্থায় আমার মেয়ে পড়ে রয়েছে। বাড়িতে আনার পর জ্ঞান ফিরলে ওখানে কীভাবে গেলে জানতে চাইলে সে ধর্ষণের ঘটনা বলে।

এ ঘটনার পর থেকে কাউকে কিছু না বলতে তার পরিবারের লোকজন আমাকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমি এর বিচার চেয়ে বুধবার রাতে থানায় একটি মামলা করেছি।

জাকিমের মা তাজমহল বেগম বলেন, পাশের বাড়ির কতুব উদ্দিনের মেয়ের সঙ্গে আমার ছেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আমরা বিয়ের জন্য তাদের বাড়িতে গিয়েছিলাম। কিন্তু তারা আমাদের সঙ্গে কথা দিয়ে অন্য জায়গায় মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে। আমার ছেলেকে ফাঁসাতে কতুব উদ্দিনের ভাইয়ের মেয়েকে ঘর থেকে অন্য কেউ নিয়ে এমন কাজ করেছে মনে হয়।

ছেলে কোথায় আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পালিয়ে চট্টগ্রাম চলে গেছে।

এ বিষয়ে ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, শুনেছি রুদ্রশ্রী গ্রামে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে। আমি এর বিচার দাবি করছি।

মদন থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানান, এ ব্যাপারে মদন থানায় ভিকটিমের বাবা ধর্ষক জাকিমকে আসামি করে বুধবার রাতে একটি মামলা করেছেন। ভিকটিমকে বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।

বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে ধর্ষণ

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বড় বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে ধর্ষণ
জাকিম আলী। ছবি: যুগান্তর

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় বড় বোনকে বিয়ে না দেওয়ায় ছোট বোনকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে জাকিম আলী নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার ভুক্তভোগী ওই শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার রাতে জাকিমের বিরুদ্ধে মদন থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন ওই শিশুটির বাবা। তবে এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত জাকিম আলী। জাকিম একই গ্রামের সমুজ আলীর ছেলে।

ধর্ষণের স্বীকার মেয়েটির বাবা বলেন, প্রতিবেশী সমুর আলীর ছেলে জাকিম আমার বড় ভাইয়ের মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমি এতে অসম্মতি প্রকাশ করি। এক মাস আগে আমার ভাতিজিকে অন্যত্রে বিয়ে দিয়েছি। এর পর থেকেই জাকিম আমাদের দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে আসছিল।

গত ২১ জানুয়ারি রাতে আমি জমিতে সেচ দিয়ে হাওর থেকে বাড়িতে ফিরছিলাম। এ সময় দেখতে পাই বাড়ির সামনের জমিতে অচেতন অবস্থায় আমার মেয়ে পড়ে রয়েছে। বাড়িতে আনার পর জ্ঞান ফিরলে ওখানে কীভাবে গেলে জানতে চাইলে সে ধর্ষণের ঘটনা বলে।

এ ঘটনার পর থেকে কাউকে কিছু না বলতে তার পরিবারের লোকজন আমাকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমি এর বিচার চেয়ে বুধবার রাতে থানায় একটি মামলা করেছি।

জাকিমের মা তাজমহল বেগম বলেন, পাশের বাড়ির কতুব উদ্দিনের মেয়ের সঙ্গে আমার ছেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আমরা বিয়ের জন্য তাদের বাড়িতে গিয়েছিলাম। কিন্তু তারা আমাদের সঙ্গে কথা দিয়ে অন্য জায়গায় মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে। আমার ছেলেকে ফাঁসাতে কতুব উদ্দিনের ভাইয়ের মেয়েকে ঘর থেকে অন্য কেউ নিয়ে এমন কাজ করেছে মনে হয়।

ছেলে কোথায় আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পালিয়ে চট্টগ্রাম চলে গেছে।

এ বিষয়ে ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, শুনেছি রুদ্রশ্রী গ্রামে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে। আমি এর বিচার দাবি করছি।

মদন থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানান, এ ব্যাপারে মদন থানায় ভিকটিমের বাবা ধর্ষক জাকিমকে আসামি করে বুধবার রাতে একটি মামলা করেছেন। ভিকটিমকে বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন