তানভীর হত্যা: সহযোগী লিমন গ্রেফতার
jugantor
তানভীর হত্যা: সহযোগী লিমন গ্রেফতার

  শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

৩০ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:৩৯:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

তানভীর হত্যা: সহযোগী লিমন গ্রেফতার

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে স্কুলছাত্র তানভীর আহমেদ হত্যার ঘটনায় জড়িত আরেক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার নাম লিমন মিয়া (১৯)।

শুক্রবার রাতে উপজেলার মড়রা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ। লিমন মড়রা গ্রামের মরম আলীর ছেলে। তানভীর হত্যা মামলায় এ নিয়ে চার আসামি গ্রেফতার হয়েছে।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি অজয় চন্দ্র দেব বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গ্রেফতার লিমন হত্যাকারীদের অন্যতম সহযোগী। তানভীরকে ফোন দিয়ে লিমন বাড়ি থেকে বের করে আনে। আদালতে তার রিমান্ড চাওয়া হবে।

এ ঘটনায় হত্যার সঙ্গে জড়িত উজ্জ্বল, শান্ত ও জাহিদ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

জানা যায়, গত ২৪ জানুয়ারি উজ্জ্বল, জাহিদ এবং শান্ত তানভীরকে হত্যার ছক কষে। তাদের পরিকল্পনা মোতাবেক উজ্জ্বল তানভীরের গলায় সুতা দিয়ে ফাঁস দেয়। শান্ত এবং জাহিদ উভয়েই তানভীরের মুখ চেপে ধরে রাখে। কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পরে তানভীর।

পরে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তানভীরের মৃতদেহটি পাশের পুকুরের কাঁদার নিচে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। উক্ত স্থানে অনেক কচুরিপানা দিয়ে রাখে যাতে মরদেহের সন্ধান কেউ না পায়।

এরপর উজ্জ্বল এবং জাহিদ তাদের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী অপহরণের নাটক সাজায়। জাহিদ তানভীরের ব্যবহৃত সিম থেকে তার বাবার নাম্বার সংগ্রহ করে এবং উজ্জ্বলের পরামর্শ অনুযায়ী মুক্তিপণের জন্য ৮০ লাখ টাকা দাবি করে।

যা ছিল তাদেরই পরিকল্পনার অংশ বিশেষ। গত মঙ্গলবার দুপুরে আসামি উজ্জ্বলের বাড়ির পরিত্যক্ত একটি ডোবা থেকে তানভীরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

হত্যার ঘটনায় গত বুধবার তানভীরের বাবা পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

তানভীর হত্যা: সহযোগী লিমন গ্রেফতার

 শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
৩০ জানুয়ারি ২০২১, ০১:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তানভীর হত্যা: সহযোগী লিমন গ্রেফতার
ছবি: যুগান্তর

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে স্কুলছাত্র তানভীর আহমেদ হত্যার ঘটনায় জড়িত আরেক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার নাম লিমন মিয়া (১৯)।

শুক্রবার রাতে উপজেলার মড়রা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ। লিমন মড়রা গ্রামের মরম আলীর ছেলে। তানভীর হত্যা মামলায় এ নিয়ে চার আসামি গ্রেফতার হয়েছে।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি অজয় চন্দ্র দেব বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গ্রেফতার লিমন হত্যাকারীদের অন্যতম সহযোগী। তানভীরকে ফোন দিয়ে লিমন বাড়ি থেকে বের করে আনে। আদালতে তার রিমান্ড চাওয়া হবে।

এ ঘটনায় হত্যার সঙ্গে জড়িত উজ্জ্বল, শান্ত ও জাহিদ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

জানা যায়, গত ২৪ জানুয়ারি উজ্জ্বল, জাহিদ এবং শান্ত তানভীরকে হত্যার ছক কষে। তাদের পরিকল্পনা মোতাবেক উজ্জ্বল তানভীরের গলায় সুতা দিয়ে ফাঁস দেয়। শান্ত এবং জাহিদ উভয়েই তানভীরের মুখ চেপে ধরে রাখে। কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পরে তানভীর।

পরে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তানভীরের মৃতদেহটি পাশের পুকুরের কাঁদার নিচে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। উক্ত স্থানে অনেক কচুরিপানা দিয়ে রাখে যাতে মরদেহের সন্ধান কেউ না পায়।

এরপর উজ্জ্বল এবং জাহিদ তাদের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী অপহরণের নাটক সাজায়। জাহিদ তানভীরের ব্যবহৃত সিম থেকে তার বাবার নাম্বার সংগ্রহ করে এবং উজ্জ্বলের পরামর্শ অনুযায়ী মুক্তিপণের জন্য ৮০ লাখ টাকা দাবি করে।

যা ছিল তাদেরই পরিকল্পনার অংশ বিশেষ। গত মঙ্গলবার দুপুরে আসামি উজ্জ্বলের বাড়ির পরিত্যক্ত একটি ডোবা থেকে তানভীরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

হত্যার ঘটনায় গত বুধবার তানভীরের বাবা পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন