চেয়ারম্যানের চেয়ারে আগুন ধরিয়ে দিলেন মেম্বার (ভিডিও)
jugantor
চেয়ারম্যানের চেয়ারে আগুন ধরিয়ে দিলেন মেম্বার (ভিডিও)

  বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি    

৩০ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:০৯:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় চাহিদামাফিক ভিজিডি কার্ড না পেয়ে চেয়ারম্যানের চেয়ারে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন এক ইউপি মেম্বার।

শনিবার উপজেলার ২নং কাটলা ইউনিয়নে পুরাতন ইউপি অফিসের তালা ভেঙে অফিস ভাংচুর ও চেয়ারম্যানের বসার চেয়ার বের করে প্রকাশ্য রাস্তার উপর আগুন দেন।

অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলাম ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য। তিনি অকপটে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

২নং কাটলা ইউপি চেয়ারম্যান নাজির হোসেন যুগান্তরকে জানান, ১নং ওয়ার্ডে এবার ২৬টি ভিজিডি কার্ড বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ইউপি সদস্য আরও বেশি কার্ডের দাবি করে শনিবার কাটলা বাজারের পুরাতন ইউপি অফিসের তালা ভেঙে অফিসের জিনিসপত্র ভাংচুর ও চেয়ারম্যানের বসার চেয়ার বের করে বাজারের সামনে প্রকাশ্য রাস্তায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন।

১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, তিনি ভিজিডি কার্ডের জন্য ১০ জনের নাম দিয়েছিলেন। কিন্তু ওই সব নাম তালিকাতে না থাকায় তিনি রাগান্বিত হয়ে উপরোক্ত কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে স্বীকার করেন।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার ও থানার ওসি মনিরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ খবর লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

চেয়ারম্যানের চেয়ারে আগুন ধরিয়ে দিলেন মেম্বার (ভিডিও)

 বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   
৩০ জানুয়ারি ২০২১, ০৭:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় চাহিদামাফিক ভিজিডি কার্ড না পেয়ে চেয়ারম্যানের চেয়ারে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন এক ইউপি মেম্বার। 

শনিবার উপজেলার ২নং কাটলা ইউনিয়নে পুরাতন ইউপি অফিসের তালা ভেঙে অফিস ভাংচুর ও চেয়ারম্যানের বসার চেয়ার বের করে প্রকাশ্য রাস্তার উপর আগুন দেন। 

অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলাম ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য। তিনি অকপটে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

২নং কাটলা ইউপি চেয়ারম্যান নাজির হোসেন যুগান্তরকে জানান, ১নং ওয়ার্ডে এবার ২৬টি ভিজিডি কার্ড বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ইউপি সদস্য আরও বেশি কার্ডের দাবি করে শনিবার কাটলা বাজারের পুরাতন ইউপি অফিসের তালা ভেঙে অফিসের জিনিসপত্র ভাংচুর ও চেয়ারম্যানের বসার চেয়ার বের করে বাজারের সামনে প্রকাশ্য রাস্তায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন।

১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, তিনি ভিজিডি কার্ডের জন্য ১০ জনের নাম দিয়েছিলেন। কিন্তু ওই সব নাম তালিকাতে না থাকায় তিনি রাগান্বিত হয়ে উপরোক্ত কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে স্বীকার করেন।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার ও থানার ওসি মনিরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ খবর লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন