দিনাজপুরে পৌঁছেছে ৯৬ হাজার ডোজ করোনার ভ্যাকসিন
jugantor
দিনাজপুরে পৌঁছেছে ৯৬ হাজার ডোজ করোনার ভ্যাকসিন

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

৩১ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:২৬:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনার ভ্যাকসিন

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে দিনাজপুরে এসে পৌঁছেছে ৯৬ হাজার ডোজ করোনার ভ্যাকসিন। রোববার বেলা সোয়া ১১টায় বেক্সিমকো ফার্মার একটি ফ্রিজিং গাড়িতে এসব ভ্যাকসিন ঢাকা থেকে এসে পৌঁছে দিনাজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে।

দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ এ ভ্যাকসিনগুলো গ্রহণ করেন। এ সময় দিনাজপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলমসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ভ্যাকসিনগুলো গ্রহণ করে দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, ঢাকা থেকে আসা ৯ হাজার ৬শ' ভায়েলে মোট ৯৬ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন তিনি। এরপর ইপিআই স্টোরে নির্দিষ্ট তাপমাত্রা অনুসরণ করেই ভ্যাকসিনগুলো রাখা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ে যেসব ভ্যাকসিন দেয়া হবে, সেগুলো পরবর্তীতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হবে। দিনাজপুর জেলার ১২টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইস লিঙ্ক রেফ্রিজারেটরের মাধ্যমে এগুলো রাখা হবে।

সিভিল সার্জন বলেন, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ভ্যাকসিন প্রয়োগের কাজ শুরু করা হবে। এ জন্য দিনাজপুর সদরে দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতাল ও এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২টি কেন্দ্রসহ ১৩টি উপজেলার মোট ১৪টি কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে। এই ১৪টি কেন্দ্রে মোট ৩৮টি টিম কাজ করবে। করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য রেজিস্ট্রেশন কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

দিনাজপুরে পৌঁছেছে ৯৬ হাজার ডোজ করোনার ভ্যাকসিন

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
৩১ জানুয়ারি ২০২১, ০৬:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনার ভ্যাকসিন
করোনার ভ্যাকসিন

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে দিনাজপুরে এসে পৌঁছেছে ৯৬ হাজার ডোজ করোনার ভ্যাকসিন। রোববার বেলা সোয়া ১১টায় বেক্সিমকো ফার্মার একটি ফ্রিজিং গাড়িতে এসব ভ্যাকসিন ঢাকা থেকে এসে পৌঁছে দিনাজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে। 

দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ এ ভ্যাকসিনগুলো গ্রহণ করেন। এ সময় দিনাজপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলমসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

ভ্যাকসিনগুলো গ্রহণ করে দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, ঢাকা থেকে আসা ৯ হাজার ৬শ' ভায়েলে মোট ৯৬ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন তিনি। এরপর ইপিআই স্টোরে নির্দিষ্ট তাপমাত্রা অনুসরণ করেই ভ্যাকসিনগুলো রাখা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ে যেসব ভ্যাকসিন দেয়া হবে, সেগুলো পরবর্তীতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হবে। দিনাজপুর জেলার ১২টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইস লিঙ্ক রেফ্রিজারেটরের মাধ্যমে এগুলো রাখা হবে। 

সিভিল সার্জন বলেন, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ভ্যাকসিন প্রয়োগের কাজ শুরু করা হবে। এ জন্য দিনাজপুর সদরে দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতাল ও এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২টি কেন্দ্রসহ ১৩টি উপজেলার মোট ১৪টি কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে। এই ১৪টি কেন্দ্রে মোট ৩৮টি টিম কাজ করবে। করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য রেজিস্ট্রেশন কাজ চলছে বলে জানান তিনি। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন