বান্দরবানে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত
jugantor
বান্দরবানে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

  বান্দরবান ও উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:২৭:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বন্দুকযুদ্ধ

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে কক্সবাজার ৩৪ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন।

বিজিবির দাবি, নিহত রোহিঙ্গা যুবকরা মাদককারবারি। তাদের কাছ থেকে এক লাখ পিস ইয়াবা, দুটি একনলা বন্দুক এবং ছয়টি কার্তুজ জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন।

রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সীমান্তের ৪০নং পিলার রেজু গর্জনবনিয়া চাকমাপাড়া ব্রিজের সন্নিকটে এ `বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- উখিয়ার কুতুপালং লাম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১ ব্লক-বি/৩-এর বাসিন্দা ফোরকান আহমদের ছেলে জোবায়ের (৩০) ও একই ক্যাম্পের-১ ব্লক-সির বাসিন্দা মৃত আমির হামজার ছেলে দিল মোহাম্মদ (২৫)।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির সহকারী পরিচালক ইয়ার হোসেন এ তথ্যা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি ইয়াবাকারবারির দলকে মিয়ানমার থেকে আসতে দেখে রেজুপাড়া বিজিবি সদস্যরা তাদের চ্যালেঞ্জ করেন।

এ সময় ইয়াবাকারবারিরা টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করে। বিজিবি সদস্যরা প্রাণ রক্ষার্থে পাল্টা গুলি করলে তারা পাহাড়ি জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।

পরে টহল দল ঘটনাস্থল থেকে দুই ইয়াবাকারবারিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ইয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশি তৈরি একনলা বন্দুক, ছয় রাউন্ড কার্তুজ ও এক লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা ইয়াবার মূল্য প্রায় তিন কোটি টাকা। এ ব্যাপারে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

বান্দরবানে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

 বান্দরবান ও উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:২৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বন্দুকযুদ্ধ
ফাইল ছবি

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে কক্সবাজার ৩৪ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন।

বিজিবির দাবি, নিহত রোহিঙ্গা যুবকরা মাদককারবারি। তাদের কাছ থেকে এক লাখ পিস ইয়াবা, দুটি একনলা বন্দুক এবং ছয়টি কার্তুজ জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন।

রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সীমান্তের ৪০নং পিলার রেজু গর্জনবনিয়া চাকমাপাড়া ব্রিজের সন্নিকটে এ `বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- উখিয়ার কুতুপালং লাম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১ ব্লক-বি/৩-এর বাসিন্দা ফোরকান আহমদের ছেলে জোবায়ের (৩০) ও একই ক্যাম্পের-১ ব্লক-সির বাসিন্দা মৃত আমির হামজার ছেলে দিল মোহাম্মদ (২৫)।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির সহকারী পরিচালক ইয়ার হোসেন এ তথ্যা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি ইয়াবাকারবারির দলকে মিয়ানমার থেকে আসতে দেখে রেজুপাড়া বিজিবি সদস্যরা তাদের চ্যালেঞ্জ করেন।

এ সময় ইয়াবাকারবারিরা টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করে। বিজিবি সদস্যরা প্রাণ রক্ষার্থে পাল্টা গুলি করলে তারা পাহাড়ি জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।

পরে টহল দল ঘটনাস্থল থেকে দুই ইয়াবাকারবারিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।  

ইয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশি তৈরি একনলা বন্দুক, ছয় রাউন্ড কার্তুজ ও এক লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা ইয়াবার মূল্য প্রায় তিন কোটি টাকা। এ ব্যাপারে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন