কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা, বিচার দাবি
jugantor
কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা, বিচার দাবি

  নরসিংদী প্রতিনিধি  

১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:২৭:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীতে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নরসিংদীর পুরানচর চরভাসানিয়া গ্রামের যুব সমাজের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে নারী পুরুষসহ গ্রামের প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত বৃহস্পতিবার রাতে বশির মোল্লা নামে এক ড্রেজার ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে প্রতিপক্ষরা। খবর পেয়ে মাধবদী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ আবু দাইয়ানসহ ২৫ জনকে আসামি করে মাধবদী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যাকাণ্ডের আট দিন পেরিয়ে গেলেও অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এরই জের ধরে দুপুরে গ্রামের নারী-পুরুষসহ প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষ মানববন্ধন করে বিচারের দাবি জানান।

মানববন্ধনে পাইকারচর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সাবের ইউপি সদস্য হারুনুর রশিদ বলেন, পুরানচর চরভাসানিয়া গ্রামটি শান্তির একটি গ্রাম। এই গ্রামে আবু দাইয়ান ও তার লোকজনের ইয়াবা ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় তারা আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। এরই জেরে বশির মোল্লা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে আবু দাইয়ান ও তারেকের নেতৃত্বে ৪০-৫০ জন লোক তার ওপর হামলা চালায়। ওই সময় তারা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। আমরা এর বিচার চাই।

নিহতের মা ভানু বলেন, আমার ছেলে দুপুরে খেয়ে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যায়। সন্ধ্যায় সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে আবু দাইয়ান ও তারেকের নেতৃত্বে অহিদুল শহিদুল, আমান, শফি, নুরুল ইসলাম ও রানা ডাকাতসহ ৪০-৫০ জন লোক তাকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে সেখানে গেলে তারা আমার গলায় দা ধরে। পরে লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। তখন আমি লাশ জড়িয়ে শুয়ে পড়ি। এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়।

কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা, বিচার দাবি

 নরসিংদী প্রতিনিধি 
১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৭:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীতে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নরসিংদীর পুরানচর চরভাসানিয়া গ্রামের যুব সমাজের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে নারী পুরুষসহ গ্রামের প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত বৃহস্পতিবার রাতে বশির মোল্লা নামে এক ড্রেজার ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে প্রতিপক্ষরা। খবর পেয়ে মাধবদী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ আবু দাইয়ানসহ ২৫ জনকে আসামি করে মাধবদী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যাকাণ্ডের আট দিন পেরিয়ে গেলেও অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এরই জের ধরে দুপুরে গ্রামের নারী-পুরুষসহ প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষ মানববন্ধন করে বিচারের দাবি জানান।

মানববন্ধনে পাইকারচর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সাবের ইউপি সদস্য হারুনুর রশিদ বলেন, পুরানচর চরভাসানিয়া গ্রামটি শান্তির একটি গ্রাম। এই গ্রামে আবু দাইয়ান ও তার লোকজনের ইয়াবা ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় তারা আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। এরই জেরে বশির মোল্লা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে আবু দাইয়ান ও তারেকের নেতৃত্বে  ৪০-৫০ জন লোক তার ওপর হামলা চালায়। ওই সময় তারা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। আমরা এর বিচার চাই।

নিহতের মা ভানু বলেন, আমার ছেলে দুপুরে খেয়ে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যায়। সন্ধ্যায় সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে আবু দাইয়ান ও তারেকের নেতৃত্বে অহিদুল শহিদুল, আমান, শফি, নুরুল ইসলাম ও রানা ডাকাতসহ ৪০-৫০ জন লোক তাকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে সেখানে গেলে তারা আমার গলায় দা ধরে। পরে লাশ নদীতে ডুবিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। তখন আমি লাশ জড়িয়ে শুয়ে পড়ি। এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন