ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম নারী মেয়র সাংবাদিক বন্যা
jugantor
ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম নারী মেয়র সাংবাদিক বন্যা

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি  

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:০১:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় প্রথম নারী মেয়র হয়েছেন বাংলাদেশ মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাংবাদিক আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা। তিনি এ পৌরসভার ১২তম মেয়র।

চতুর্থ ধাপে পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ২৬ হাজার ৫০২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শরিফুল ইসলাম শরিফ ভোট পেয়েছেন মাত্র ৫ হাজার ৩৩৩।

রোববার সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জিলহাস উদ্দিন বেসরকারিভাবে আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যার বিজয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার জন্মলগ্ন থেকে জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কিছু দিন আইন পেশায় যুক্ত ছিলেন তিনি। বন্যার সাফল্যে স্থানীয় সংবাদকর্মী ও আইনজীবীরা গর্ববোধ করছেন।

সকাল ৮টা থেকে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ২১টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দিতে সকাল থেকেই ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি চোখে পড়ে। উৎসবমুখর পরিবেশে বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনসহ তিনজন মেয়র প্রার্থী এবং ৫৬ জন কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৬০ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২৯ হাজার ৭১২ জন ও নারী ভোটার ৩১ হাজার ১৫ জন।

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম নারী মেয়র সাংবাদিক বন্যা

 ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় প্রথম নারী মেয়র হয়েছেন বাংলাদেশ মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাংবাদিক আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা। তিনি এ পৌরসভার ১২তম মেয়র।

চতুর্থ ধাপে পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ২৬ হাজার ৫০২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শরিফুল ইসলাম শরিফ ভোট পেয়েছেন মাত্র ৫ হাজার ৩৩৩।

রোববার সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জিলহাস উদ্দিন বেসরকারিভাবে আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যার বিজয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার জন্মলগ্ন থেকে জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কিছু দিন আইন পেশায় যুক্ত ছিলেন তিনি। বন্যার সাফল্যে স্থানীয় সংবাদকর্মী ও আইনজীবীরা গর্ববোধ করছেন।

সকাল ৮টা থেকে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ২১টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দিতে সকাল থেকেই ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি চোখে পড়ে। উৎসবমুখর পরিবেশে বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনসহ তিনজন মেয়র প্রার্থী এবং ৫৬ জন কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৬০ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২৯ হাজার ৭১২ জন ও নারী ভোটার ৩১ হাজার ১৫ জন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন