কাদের মির্জাকে গরুচোর বললেন তারা
jugantor
কাদের মির্জাকে গরুচোর বললেন তারা

  সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি  

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:২৩:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই ও নোয়াখালী বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদেরকে গরুচোর আখ্যা দিয়েছেন ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা।

মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী শহরের ফুডল্যান্ড রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে তাকে গরুচোর আখ্যা দেন।

লিখিত বক্তব্যে ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা দাবি করেন, কাদের মির্জা সোনাগাজীর ছোট ফেনী নদীর উপর সাহেবের ঘাট ব্রিজের সংস্কার কাজে ঠিকাদারের কাছে চাঁদা দাবি করেছেন, তিনি বসুর হাট পৌর এলাকায় তার ছেলেকে দিয়ে সিএনজি চালকদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় করছেন।

এছাড়া কাদের মির্জা আ'লীগের সভাপতি মারুফ, চরবালুয়ার যুবলীগ সভাপতি সৌরভ, গাংচিলের যুবলীগ সভাপতি রাশেদ ও চর কাঁকড়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মিন্টুসহ ৪জন নেতাকে খুন করিয়েছেন। এর মধ্যে বাদীদের চাপ প্রয়োগ করে একাধিক মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

আ'লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তিনি অনিয়মতান্ত্রিকভাবে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছেন; যা সম্পূর্ণ অগঠনতান্ত্রিক।

তিনি মুখে নীতি কথা বললেও প্রকৃতপক্ষে বিগত বসুরহাট পৌর নির্বাচনে তার অনুসারী ছাড়া আ'লীগসহ সাধারণ ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে দেননি মির্জা অনুসারীরা। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার একটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী জনৈক কামরুল ইসলাম থেকে কাদের মির্জার ছেলে তাসকিন মির্জা একটি গাড়ি উপহার নিয়েছেন।

ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, কাদের মির্জা নিজেকে সৎ বলে দাবি করলেও মূলত দুর্নীতি আর টেন্ডারবাজির মাধ্যমে তিনি আমেরিকায় একটি বাড়ি ক্রয় করেছেন এবং ঢাকা শহরে নামে বেনামে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন।

এ সময় তারা কাদের মির্জাকে গরু চোর আখ্যা দেন। দলীয় হাইকমান্ড তার বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা না করলে রাজপথ অবরোধেরও ঘোষণা দেন তারা।

তারা অভিযোগ করেন, ফেনী-নোয়াখালীসহ সারা দেশের হাজার হাজার দলীয় নিবেদিত নেতাকর্মীর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হলেও শুধু দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই হয়ে তিনি পার পেয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা আ'লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন।

বক্তব্য রাখেন ফেনী পৌরসভার মেয়র, ফেনী পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী এবং জেলা যুবলীগের সভাপতি, দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন।

আরও উপস্থিত ছিলেন ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধূরী সোহেল, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলিম মজুমদার, সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন প্রমুখ।

কাদের মির্জাকে গরুচোর বললেন তারা

 সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি 
১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৮:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আওয়ামী লীগ
ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা। ছবি: যুগান্তর

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই ও নোয়াখালী বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদেরকে গরুচোর আখ্যা দিয়েছেন ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা।

মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী শহরের ফুডল্যান্ড রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে তাকে গরুচোর আখ্যা দেন।

লিখিত বক্তব্যে ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা দাবি করেন, কাদের মির্জা সোনাগাজীর ছোট ফেনী নদীর উপর সাহেবের ঘাট ব্রিজের সংস্কার কাজে ঠিকাদারের কাছে চাঁদা দাবি করেছেন, তিনি বসুর হাট পৌর এলাকায় তার ছেলেকে দিয়ে সিএনজি চালকদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় করছেন।

এছাড়া কাদের মির্জা আ'লীগের সভাপতি মারুফ, চরবালুয়ার যুবলীগ সভাপতি সৌরভ, গাংচিলের যুবলীগ সভাপতি রাশেদ ও চর কাঁকড়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মিন্টুসহ ৪জন নেতাকে খুন করিয়েছেন। এর মধ্যে বাদীদের চাপ প্রয়োগ করে একাধিক মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

আ'লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তিনি অনিয়মতান্ত্রিকভাবে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছেন; যা সম্পূর্ণ অগঠনতান্ত্রিক।

তিনি মুখে নীতি কথা বললেও প্রকৃতপক্ষে বিগত বসুরহাট পৌর নির্বাচনে তার অনুসারী ছাড়া আ'লীগসহ সাধারণ ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে দেননি মির্জা অনুসারীরা। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার একটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী জনৈক কামরুল ইসলাম থেকে কাদের মির্জার ছেলে তাসকিন মির্জা একটি গাড়ি উপহার নিয়েছেন।

ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, কাদের মির্জা নিজেকে সৎ বলে দাবি করলেও মূলত দুর্নীতি আর টেন্ডারবাজির মাধ্যমে তিনি আমেরিকায় একটি বাড়ি ক্রয় করেছেন এবং ঢাকা শহরে নামে বেনামে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন।

এ সময় তারা কাদের মির্জাকে গরু চোর আখ্যা দেন। দলীয় হাইকমান্ড তার বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা না করলে রাজপথ অবরোধেরও ঘোষণা দেন তারা।

তারা অভিযোগ করেন, ফেনী-নোয়াখালীসহ সারা দেশের হাজার হাজার দলীয় নিবেদিত নেতাকর্মীর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হলেও শুধু দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই হয়ে তিনি পার পেয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা আ'লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন।

বক্তব্য রাখেন ফেনী পৌরসভার মেয়র, ফেনী পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী এবং জেলা যুবলীগের সভাপতি, দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন।

আরও উপস্থিত ছিলেন ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধূরী সোহেল, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলিম মজুমদার, সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আবদুল কাদের মির্জা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন