চেয়ারম্যানের কারখানায় ৬০ কোটি টাকার কারেন্ট জাল
jugantor
চেয়ারম্যানের কারখানায় ৬০ কোটি টাকার কারেন্ট জাল

  যুগান্তর প্রতিবেদন, মুন্সীগঞ্জ  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:২৬:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

চেয়ারম্যানের কারখানায় ৬০ কোটি টাকার কারেন্ট জাল

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার মালিকানাধীন কারখানাতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অবৈধ কারেন্ট জাল ও ববিন জব্দ করেছে কোস্টগার্ড।

মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার গোসাইবাগ পান্না সিনেমা হলের পেছনে চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন কারেন্ট জাল আয়রনের ফ্যাক্টরি সাওবান ফাইবার ইন্ডাস্ট্রি এবং তন্ময় ফিশিং নেট ও কারেন্ট জাল উৎপাদনকারী রানা মুন্সী নামে ফ্যাক্টরিতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কোস্টগার্ড সূত্রে জানা যায়, অভিযানে এক কোটি ৯৭ লাখ মিটার কারেন্ট জাল, বিপুল পরিমাণ ববিন জব্দ করা হয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৬০ কোটি টাকা। এ সময় দুজনকে আটক করা হলেও সাওবান ফাইবার ইন্ডাস্ট্রি নামের কারেন্ট জাল আয়রন ফ্যাক্টরির মালিক গোলাম মোস্তফা পালিয়ে যান।

পরে জব্দকৃত কারেন্ট জাল ধলেশ্বরী নদীর তীরে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।

পাগলা কোস্টগার্ড স্টেশনের স্টেশন কমান্ডার লে. আশমাদুল বলেন, পঞ্চসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা রাজনৈতিক প্রশ্রয়ে দীর্ঘদিন ধরে অনেকটা প্রকাশ্যে কারেন্ট জালের ব্যবসা পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন।

গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তার ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালায় কোস্টগার্ড। পরে এসব কারেন্ট জাল ও ববিন জব্দ করা হয়। বাকি আইনি পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন।

এ সময় অভিযানে আরও উপস্থিত ছিলেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ইলিয়াস শিকদার, জেলা মৎস্য অফিসার আব্দুল আলীম, পাগলা কোস্টগার্ড স্টেশনের চিফ পেটি অফিসার সানোয়ার হোসেন, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা টিপু সুলতান প্রমুখ।

এ ব্যাপারে কারেন্ট জাল কারখানার মালিক অভিযুক্ত পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের সঙ্গে একাধিকবার তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

চেয়ারম্যানের কারখানায় ৬০ কোটি টাকার কারেন্ট জাল

 যুগান্তর প্রতিবেদন, মুন্সীগঞ্জ 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০১:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চেয়ারম্যানের কারখানায় ৬০ কোটি টাকার কারেন্ট জাল
ফাইল ছবি

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার মালিকানাধীন কারখানাতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অবৈধ কারেন্ট জাল ও ববিন জব্দ করেছে কোস্টগার্ড।

মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার গোসাইবাগ পান্না সিনেমা হলের পেছনে চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন কারেন্ট জাল আয়রনের ফ্যাক্টরি সাওবান ফাইবার ইন্ডাস্ট্রি এবং তন্ময় ফিশিং নেট ও কারেন্ট জাল উৎপাদনকারী রানা মুন্সী নামে ফ্যাক্টরিতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কোস্টগার্ড সূত্রে জানা যায়, অভিযানে এক কোটি ৯৭ লাখ মিটার কারেন্ট জাল, বিপুল পরিমাণ ববিন জব্দ করা হয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৬০ কোটি টাকা। এ সময় দুজনকে আটক করা হলেও সাওবান ফাইবার ইন্ডাস্ট্রি নামের কারেন্ট জাল আয়রন ফ্যাক্টরির মালিক গোলাম মোস্তফা পালিয়ে যান।

পরে জব্দকৃত কারেন্ট জাল ধলেশ্বরী নদীর তীরে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।

পাগলা কোস্টগার্ড স্টেশনের স্টেশন কমান্ডার লে. আশমাদুল বলেন, পঞ্চসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা রাজনৈতিক প্রশ্রয়ে দীর্ঘদিন ধরে অনেকটা প্রকাশ্যে কারেন্ট জালের ব্যবসা পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন।

গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তার ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালায় কোস্টগার্ড। পরে এসব কারেন্ট জাল ও ববিন জব্দ করা হয়। বাকি আইনি পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন।

এ সময় অভিযানে আরও উপস্থিত ছিলেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ইলিয়াস শিকদার, জেলা মৎস্য অফিসার আব্দুল আলীম, পাগলা কোস্টগার্ড স্টেশনের চিফ পেটি অফিসার সানোয়ার হোসেন, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা টিপু সুলতান প্রমুখ।

এ ব্যাপারে কারেন্ট জাল কারখানার মালিক অভিযুক্ত পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের সঙ্গে একাধিকবার তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন