স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করছে যুবকরা
jugantor
স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করছে যুবকরা

  রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৪৮:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে অস্বাভাবিক জোয়ারে ক্ষতিগ্রস্ত চলাচল অনুপযোগী একটি সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় যুবকরা। স্বেচ্ছাশ্রমে গত তিনদিন ধরে ওই সড়কের মেরামতের কাজ চলছে।

মঙ্গলবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, এলাকার বাসিন্দা রিপন হোসেন, ফিরোজ, সবুজ, ইব্রাহিম স্বপন, আকবর, রিয়াজ, নূর করিম, আলাউদ্দিন, বাবলু, আজগর, মঞ্জুর, রাশেদ, রাকিব, হারুন, রুবেলসহ ২৫-৩০ জন তরুণ-যুবক মিলে রাস্তা মেরামতের কাজ করছে। বস্তাতে মাটি ভরে ভেঙ্গে যাওয়া রাস্তায় দিয়ে চলাচলের উপযোগী করার চেষ্টা করছে তারা।

জানা গেছে, গত বছরের আগস্ট মাসে মেঘনা নদীর কয়েক দফা অস্বাভাবিক জোয়ারে চর ফলকন ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মাতাব্বরহাট সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা নাছির সড়কটি ভেঙ্গে যায়। জোয়ার ও অতিবৃষ্টিতে সড়কটির ২০০ মিটার ভেঙে খালে পড়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে চলাচল বন্ধ হয়ে ওই এলাকার মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েন। গত সাত মাস পার হলেও কেউ সংস্কারের কেউ উদ্যোগ নেয়নি। উপায় না পেয়ে স্থানীয় যুবকরা সড়কটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়।

স্থানীয়রা জানান, ওই সড়ক দিয়ে জাজিরা এলাকা ও পার্শ্ববর্তী সাহেবেরহাট ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। প্রতিদিন রিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরসাইকেল যাতায়াত করত। কিন্তু সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ায় এসব যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটি মেরামত হওয়ায় সাময়িকভাবে চলাচল স্বাভাবিক হবে। তবে সরকারি উদ্যোগে জিও ব্যাগ ও গাইড ওয়াল দিয়ে স্থায়ীভাবে মেরামত করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় আলা বক্স জামে মসজিদের মুসল্লিরা জানান, রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ায় কারণে মুসল্লিরা মসজিদে যেতে চরম দুর্ভোগে পড়েন। সকাল বেলা মক্তবে যেতে পারে না শিশুরা।

রিকশাচালক মো. জিল্লাল জানান, সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর থেকে ওই সড়ক দিয়ে রিকশা চালানো সম্ভব হয়নি। এতে করে তাদের আয় রোজগার কমে গেছে।

মাতাব্বরহাট বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, সড়কটি দীর্ঘদিন থেকে মেরামত না হওয়ায় বাজারের মানুষের যাতায়াত কমে গেছে। যে কারণে তারা ব্যবসায় লোকসানের মুখে পড়তে হয়েছে। এখন রাস্তা মেরামতের কারণে ব্যবসায়ে গতি আসবে।

যার নামে সড়কটি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাছির উদ্দিনের নামে নামকরণ করা হয়েছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা নাছির উদ্দিন বলেন, সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবগত করা হয়েছে। তারা সংস্কারের আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। অবশেষে স্বেচ্ছাশ্রমে স্থানীয় যুবকরা মেরামত করছে। তবে স্থায়ীভাবে মেরামতের জোর দাবি জানান তিনি।

স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করছে যুবকরা

 রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৭:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে অস্বাভাবিক জোয়ারে ক্ষতিগ্রস্ত চলাচল অনুপযোগী একটি সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় যুবকরা। স্বেচ্ছাশ্রমে গত তিনদিন ধরে ওই সড়কের মেরামতের কাজ চলছে।

মঙ্গলবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, এলাকার বাসিন্দা রিপন হোসেন, ফিরোজ, সবুজ, ইব্রাহিম স্বপন,  আকবর, রিয়াজ, নূর করিম, আলাউদ্দিন, বাবলু, আজগর, মঞ্জুর, রাশেদ, রাকিব, হারুন, রুবেলসহ ২৫-৩০ জন তরুণ-যুবক মিলে রাস্তা মেরামতের কাজ করছে। বস্তাতে মাটি ভরে ভেঙ্গে যাওয়া রাস্তায় দিয়ে চলাচলের উপযোগী করার চেষ্টা করছে তারা।

জানা গেছে, গত বছরের আগস্ট মাসে মেঘনা নদীর কয়েক দফা অস্বাভাবিক জোয়ারে চর ফলকন ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মাতাব্বরহাট সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা নাছির সড়কটি ভেঙ্গে যায়। জোয়ার ও অতিবৃষ্টিতে সড়কটির ২০০ মিটার ভেঙে খালে পড়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে চলাচল বন্ধ হয়ে ওই এলাকার মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েন। গত সাত মাস পার হলেও কেউ সংস্কারের কেউ উদ্যোগ নেয়নি। উপায় না পেয়ে স্থানীয় যুবকরা সড়কটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়।

স্থানীয়রা জানান, ওই সড়ক দিয়ে জাজিরা এলাকা ও পার্শ্ববর্তী সাহেবেরহাট ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। প্রতিদিন রিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরসাইকেল যাতায়াত করত। কিন্তু সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ায় এসব যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটি মেরামত হওয়ায় সাময়িকভাবে চলাচল স্বাভাবিক হবে। তবে সরকারি উদ্যোগে জিও ব্যাগ ও গাইড ওয়াল দিয়ে স্থায়ীভাবে মেরামত করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
 
স্থানীয় আলা বক্স জামে মসজিদের মুসল্লিরা জানান, রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ায় কারণে মুসল্লিরা মসজিদে যেতে চরম দুর্ভোগে পড়েন। সকাল বেলা মক্তবে যেতে পারে না শিশুরা।

রিকশাচালক মো. জিল্লাল জানান, সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর থেকে ওই সড়ক দিয়ে রিকশা চালানো সম্ভব হয়নি। এতে করে তাদের আয় রোজগার কমে গেছে।

মাতাব্বরহাট বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, সড়কটি দীর্ঘদিন থেকে মেরামত না হওয়ায় বাজারের মানুষের যাতায়াত কমে গেছে। যে কারণে তারা ব্যবসায় লোকসানের মুখে পড়তে হয়েছে। এখন রাস্তা মেরামতের কারণে ব্যবসায়ে গতি আসবে।

যার নামে সড়কটি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাছির উদ্দিনের নামে নামকরণ করা হয়েছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা নাছির উদ্দিন বলেন, সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবগত করা হয়েছে। তারা সংস্কারের আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। অবশেষে স্বেচ্ছাশ্রমে স্থানীয় যুবকরা মেরামত করছে। তবে স্থায়ীভাবে মেরামতের জোর দাবি জানান তিনি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন