যুবলীগ সভাপতির হাতের রগ কাটল আরেক সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী
jugantor
যুবলীগ সভাপতির হাতের রগ কাটল আরেক সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৫৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার সহনাটী ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সামছুল হকের হাতের রগ কেটে ও মাথায় কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনা ঘটে সহনাটী ইউনিয়নের পাছার বাজারে সোমবার সন্ধ্যায়।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন ৪নং আমলী আদালতের বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, সামছুল হক ও সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেল দুজনই সহনাটী ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে গণসংযোগ ও সভা-সমাবেশ করে আসছে। একুশে ফেব্রুয়ারি শহিদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে দ্বন্দ্বের সূত্রপাত হয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সন্ধ্যায় সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলের নেতৃত্বে তার সমর্থকরা সামছুল হকের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় সামছুল হকের বাম হাতের ৪টি রগ কেটে গেছে ও মাথায়ও কয়েকটি স্থানে কেটে গেছে বলে তার ভাই মো. এমদাদুল হক নিশ্চিত করেন।

এমদাদুল হক বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই শামসুল ইসলাম জানান, মামলার প্রধান আসামি সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- রফিক মিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, রফিকুল ইসলাম, কাঞ্চন মিয়া, আব্দুল কদ্দুছ, সঞ্জু মিয়া, বোরহান উদ্দিন, ওবায়দুল কাদের তুহিন, আব্দুল হাই, আব্দুল মজিদ।

ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. সানাউল হক ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন খান। তারা বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে সব আসামিদের গ্রেফতার না হলে আন্দোলনে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

যুবলীগ সভাপতির হাতের রগ কাটল আরেক সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার সহনাটী ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সামছুল হকের হাতের রগ কেটে ও মাথায় কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনা ঘটে সহনাটী ইউনিয়নের পাছার বাজারে সোমবার সন্ধ্যায়।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন ৪নং আমলী আদালতের বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, সামছুল হক ও সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেল দুজনই সহনাটী ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে গণসংযোগ ও সভা-সমাবেশ করে আসছে। একুশে ফেব্রুয়ারি শহিদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে দ্বন্দ্বের সূত্রপাত হয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সন্ধ্যায় সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলের নেতৃত্বে তার সমর্থকরা সামছুল হকের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় সামছুল হকের বাম হাতের ৪টি রগ কেটে গেছে ও মাথায়ও কয়েকটি স্থানে কেটে গেছে বলে তার ভাই মো. এমদাদুল হক নিশ্চিত করেন।

এমদাদুল হক বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই শামসুল ইসলাম জানান, মামলার প্রধান আসামি সালাহ উদ্দিন কাদের রুবেলকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- রফিক মিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, রফিকুল ইসলাম, কাঞ্চন মিয়া, আব্দুল কদ্দুছ, সঞ্জু মিয়া, বোরহান উদ্দিন, ওবায়দুল কাদের তুহিন, আব্দুল হাই, আব্দুল মজিদ।

ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. সানাউল হক ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন খান। তারা বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে সব আসামিদের গ্রেফতার না হলে আন্দোলনে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন