মানুষকে সচেতন করতে নিজের এলাকায় টিকা নিলেন নায়িকা জ্যোতি
jugantor
মানুষকে সচেতন করতে নিজের এলাকায় টিকা নিলেন নায়িকা জ্যোতি

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:৪৯:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বুধবার বাবা-মাকে সঙ্গে নিয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকা নিয়েছেন নায়িকা জ্যোতিকা জ্যোতি। মানুষকে সচেতন করতে নিজের এলাকায় টিকা নিয়েছেন ওই নায়িকা।

এ সময় গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মুহাম্মদ রবিউল ইসলাম, ডা. একেএম মাহফুজুল হক ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বুধবার সকালে জ্যোতির বাবা নিতাই পাল ও মা পূর্ণিমা পালকে সঙ্গে নিয়ে এসে টিকাদান কেন্দ্রে টিকা গ্রহণ করেন।

টিকা গ্রহণ শেষে ফেসবুকে জ্যোতিকা জ্যোতি একটি পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন- প্রত্যন্ত অঞ্চলে করোনা নিয়ে যতটা হাসাহাসি ছিল এখন ভ্যাকসিন নিয়ে ততটাই ভীতি! আমার সাধ্যমতো মানুষকে সচেতন করার অংশ হিসেবে আমি আমার গ্রামের বাড়ি, আমার এলাকা গৌরীপুরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিলাম আমার পুরো পরিবারসহ। আপনারাও নিয়ে নিন, কোভিড প্রতিরোধ করুন, সুস্থ থাকুন।

তিনি বলেন, টিকা নিতে এসে মুগ্ধ হলাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও তার পুরো টিমের আন্তরিকতা ও আতিথেয়তায়! তিনি নিজে উপস্থিত থেকে আমাদের সব তত্ত্বাবধান করলেন! অনেক উন্নত দেশে এখনো ভ্যাকসিন যায়নি অথচ বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও ভ্যাকসিন পৌঁছে গেছে। করোনা মোকাবিলা সত্যিই শেখ হাসিনা সরকারের অনন্য কৃতিত্ব। ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

মানুষকে সচেতন করতে নিজের এলাকায় টিকা নিলেন নায়িকা জ্যোতি

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৮:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বুধবার বাবা-মাকে সঙ্গে নিয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকা নিয়েছেন নায়িকা জ্যোতিকা জ্যোতি। মানুষকে সচেতন করতে নিজের এলাকায় টিকা নিয়েছেন ওই নায়িকা।

এ সময় গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মুহাম্মদ রবিউল ইসলাম, ডা. একেএম মাহফুজুল হক ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
 
বুধবার সকালে জ্যোতির বাবা নিতাই পাল ও মা পূর্ণিমা পালকে সঙ্গে নিয়ে এসে টিকাদান কেন্দ্রে টিকা গ্রহণ করেন।

টিকা গ্রহণ শেষে ফেসবুকে জ্যোতিকা জ্যোতি একটি পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন- প্রত্যন্ত অঞ্চলে করোনা নিয়ে যতটা হাসাহাসি ছিল এখন ভ্যাকসিন নিয়ে ততটাই ভীতি! আমার সাধ্যমতো মানুষকে সচেতন করার অংশ হিসেবে আমি আমার গ্রামের বাড়ি, আমার এলাকা গৌরীপুরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিলাম আমার পুরো পরিবারসহ। আপনারাও নিয়ে নিন, কোভিড প্রতিরোধ করুন, সুস্থ থাকুন।

তিনি বলেন, টিকা নিতে এসে মুগ্ধ হলাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও তার পুরো টিমের আন্তরিকতা ও আতিথেয়তায়! তিনি নিজে উপস্থিত থেকে আমাদের সব তত্ত্বাবধান করলেন! অনেক উন্নত দেশে এখনো ভ্যাকসিন যায়নি অথচ বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও ভ্যাকসিন পৌঁছে গেছে। করোনা মোকাবিলা সত্যিই শেখ হাসিনা সরকারের অনন্য কৃতিত্ব। ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন