দরবার শরীফ মেলায় বাঁশি বাজানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৩
jugantor
দরবার শরীফ মেলায় বাঁশি বাজানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৩

  লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৪:৪৩:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার লাকসাম কালিয়াপুর দরবার শরীফে ওরসে বসানো মেলাতে বাঁশি বাজানো কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ জন যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে উপজেলার মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউনিয়নের কালিয়াপুর-হামিরাবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কালিয়াপুর দরবার শরীফের ওরসকে কেন্দ্র করে আশপাশের এলাকায় মেলা বসে। করোনা পরিস্থিতিকে উপেক্ষা করে মেলায় শত শত দোকান বসে। এতে হাজার হাজার লোকের সমাবেশ ঘটে। রাতে কয়েকজন যুবক মেলায় গিয়ে বাঁশি কিনে বাজাতে গেলে বাধা দেয় মেলায় আসা কয়েকজন যুবকরা।

এ নিয়ে তরুণ যুবকদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়ে।খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী ইসলামপুর এলাকার ১০/১২ জন যুবক এসে তাদের ওপর হামলা করে। এক পর্যায়ে পাশের দোকানে থাকা ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে হামিরাবাগ এলাকার মেম্বার বেলায়েতের ছেলে আব্দুর রহমান (২০), তাজুল ইসলামের ছেলে ইউসুফ (১৯) ও একই এলাকার ইসমাইল হোসেন হৃদয়কে (১৮) ছুরিকাঘাতসহ কয়েকজনকে আহত করা হয়।

গুরুতর আহত আব্দুর রহমানকে প্রথমে লাকসামে পরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। বাকি আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

হামলায় আহত ইউসুফ মিয়া বলেন, মনোহরগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর এলাকার কামালের ছেলে বায়েজিদ, আবু তাহেরের ছেলে ইসরাফিল ও মেলার দোকানি সাদেকসহ ১০-১২ জন যুবক আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে।

বর্তমানে ওই এলাকায়থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। মেলা অব্যাহত থাকলে যে কোনো সময় অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে লাকসাম থানার ওসি নিজাম উদ্দিন জানান, অনুমোদন ছাড়াই এ মেলা বসানো হয়েছে। ঘটনা শুনে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

দরবার শরীফ মেলায় বাঁশি বাজানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৩

 লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৪:৪৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার লাকসাম কালিয়াপুর দরবার শরীফে ওরসে বসানো মেলাতে বাঁশি বাজানো কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ জন যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে উপজেলার মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউনিয়নের কালিয়াপুর-হামিরাবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কালিয়াপুর দরবার শরীফের ওরসকে কেন্দ্র করে আশপাশের এলাকায় মেলা বসে। করোনা পরিস্থিতিকে উপেক্ষা করে মেলায় শত শত দোকান বসে। এতে হাজার হাজার লোকের সমাবেশ ঘটে। রাতে কয়েকজন যুবক মেলায় গিয়ে বাঁশি কিনে বাজাতে গেলে বাধা দেয় মেলায় আসা কয়েকজন যুবকরা।

এ নিয়ে তরুণ যুবকদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়ে।খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী ইসলামপুর এলাকার ১০/১২ জন যুবক এসে তাদের ওপর  হামলা করে। এক পর্যায়ে পাশের দোকানে থাকা ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে হামিরাবাগ এলাকার মেম্বার বেলায়েতের ছেলে আব্দুর রহমান (২০), তাজুল ইসলামের ছেলে ইউসুফ (১৯) ও একই এলাকার ইসমাইল হোসেন হৃদয়কে (১৮) ছুরিকাঘাতসহ কয়েকজনকে আহত করা হয়।

গুরুতর আহত আব্দুর রহমানকে প্রথমে লাকসামে পরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। বাকি আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

হামলায় আহত ইউসুফ মিয়া বলেন, মনোহরগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর এলাকার কামালের ছেলে বায়েজিদ, আবু তাহেরের ছেলে  ইসরাফিল ও মেলার দোকানি সাদেকসহ ১০-১২ জন যুবক আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে।

বর্তমানে ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। মেলা অব্যাহত থাকলে যে কোনো সময় অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে লাকসাম থানার ওসি নিজাম উদ্দিন জানান, অনুমোদন ছাড়াই এ মেলা বসানো হয়েছে। ঘটনা শুনে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন