প্রতিবন্ধীর সঙ্গে বিয়ে, কিশোরীর মায়ের মামলায় বরের বাবা গ্রেফতার
jugantor
প্রতিবন্ধীর সঙ্গে বিয়ে, কিশোরীর মায়ের মামলায় বরের বাবা গ্রেফতার

  দশমিনা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:০৪:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরের সঙ্গে অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোরীর জোর করে বাল্যবিয়ে দেয়ায় পটুয়াখালীর দশমিনায় বরের বাবা মো. হিরন ভূঁইয়াকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জোরপূর্বক বাল্যবিয়ের শিকার হওয়া ওই কিশোরীর মা মোসা. শাহিনুর বেগমের করা মামলায় রোববার সকালে বরের বাবাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে যায়, বাল্যবিয়ের শিকার কিশোরীর বাবা মো. আলী হোসেন ঢাকায় রিকশা চালানোর সুবাদে তার পরিবার ঢাকায় বসবাস করেন। ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরীর ফুফু মোসা. রাশেদা বেগম দুই মাস আগে তাদের ঢাকার বাসায় বেড়াতে যান। বেড়ানো শেষে ঢাকা থেকে ওই কিশোরীকে তার ফুফু দশমিনা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরহাদীর নিজ গ্রামে বেড়াতে নিয়ে যান।

গত বছরের ১২ ডিসেম্বর ওই কিশোরীর ফুফু মোসা. রাশেদা বেগম চরহাদী গ্রামের মো. হিরন ভূঁইয়ার ছেলে বাকপ্রতিবন্ধী মো. ইমরান হোসেনের (১৭) সঙ্গে জোর করে বাল্যবিয়ে দেন। এ ঘটনায় রোববার সকালে জোরপূর্বক বাল্যবিয়ের শিকার কিশোরীর মা মোসা. শাহিনুর বেগম বরের পিতা মো. হিরন ভূঁইয়াকে প্রধান আসামি করে ওই কিশোরীর ফুফুসহ ৫ জনের নামে দশমিনা থানায় মামলা করেন। পুলিশ রোববার সকালেই বরের পিতা মো. হিরন ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে।

দশমিনা থানার ওসি মো. জসিম বলেন, বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

প্রতিবন্ধীর সঙ্গে বিয়ে, কিশোরীর মায়ের মামলায় বরের বাবা গ্রেফতার

 দশমিনা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৬:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরের সঙ্গে অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোরীর জোর করে বাল্যবিয়ে দেয়ায় পটুয়াখালীর দশমিনায় বরের বাবা মো. হিরন ভূঁইয়াকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জোরপূর্বক বাল্যবিয়ের শিকার হওয়া ওই কিশোরীর মা মোসা. শাহিনুর বেগমের করা মামলায় রোববার সকালে বরের বাবাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে যায়, বাল্যবিয়ের শিকার কিশোরীর বাবা মো. আলী হোসেন ঢাকায় রিকশা চালানোর সুবাদে তার পরিবার ঢাকায় বসবাস করেন। ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরীর ফুফু মোসা. রাশেদা বেগম দুই মাস আগে তাদের ঢাকার বাসায় বেড়াতে যান। বেড়ানো শেষে ঢাকা থেকে ওই কিশোরীকে তার ফুফু দশমিনা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরহাদীর নিজ গ্রামে বেড়াতে নিয়ে যান।

গত বছরের ১২ ডিসেম্বর ওই কিশোরীর ফুফু মোসা. রাশেদা বেগম চরহাদী গ্রামের মো. হিরন ভূঁইয়ার ছেলে বাকপ্রতিবন্ধী মো. ইমরান হোসেনের (১৭) সঙ্গে জোর করে বাল্যবিয়ে দেন। এ ঘটনায় রোববার সকালে জোরপূর্বক বাল্যবিয়ের শিকার কিশোরীর মা মোসা. শাহিনুর বেগম বরের পিতা মো. হিরন ভূঁইয়াকে প্রধান আসামি করে ওই কিশোরীর ফুফুসহ ৫ জনের নামে দশমিনা থানায় মামলা করেন। পুলিশ রোববার সকালেই বরের পিতা মো. হিরন ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে।

দশমিনা থানার ওসি মো. জসিম বলেন, বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন