স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রীর যাবজ্জীবন
jugantor
স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রীর যাবজ্জীবন

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:১২:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যার দায়ে স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রোববার সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান এ রায় দেন।

মামলার একমাত্র আসামি আশাশুনি উপজেলার সরাপপুর গ্রামের নিহত জাকির হোসেনের স্ত্রী মেহেরুননেসাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এর আগে জামিনে থাকা আসামি মেহেরুননেসা পালিয়ে যান।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৩ অক্টোবর মেহেরুননেসা তার স্বামী জাকির হোসেনকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। আশাশুনি থানা পুলিশ মেহেরুননেসাকে গ্রেফতার করে এবং তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়। মামলায় ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন পিপি আবদুল লতিফ। আসামিপক্ষে ছিলেন আবুবকর সিদ্দিক।

স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রীর যাবজ্জীবন

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যার দায়ে স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রোববার সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান এ রায় দেন।

মামলার একমাত্র আসামি আশাশুনি উপজেলার সরাপপুর গ্রামের নিহত জাকির হোসেনের স্ত্রী মেহেরুননেসাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এর আগে জামিনে থাকা আসামি মেহেরুননেসা পালিয়ে যান।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৩ অক্টোবর মেহেরুননেসা তার স্বামী জাকির হোসেনকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। আশাশুনি থানা পুলিশ মেহেরুননেসাকে গ্রেফতার করে এবং তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়। মামলায় ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন পিপি আবদুল লতিফ। আসামিপক্ষে ছিলেন আবুবকর সিদ্দিক।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন