বাটনে ভোট দিলেন চরফ্যাশনের মাদুরি ও আদুরি
jugantor
বাটনে ভোট দিলেন চরফ্যাশনের মাদুরি ও আদুরি

  চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি  

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৩৫:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

‘বাটন সিস্টামে ভোট দিছি, আমার অনেক আনন্দ লাগতাছে। এই প্রথম আঙুলের ছাপ দেওয়ায় টিভিতে আমার ছবি আইছে।’

প্রথমবারের মতো মাদুরি ও আদুরি নামে দুই হিজড়া আসন্ন পৌর নির্বাচনে বাটনে (ইভিএম) ভোট দিলেন।

ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে পেরে তারা অনেক আনন্দিত। মাদুরি ও আদুরি চরফ্যাশন পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের শরিফপাড়ার বাসিন্দা।

পঞ্চমধাপে চরফ্যাশন পৌরসভা নির্বাচনে চরফ্যাশন সরকারি টি-ব্রেট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় (টিভি স্কুল) কেন্দ্রে দুপুরে ভোট প্রদান করেন মাদুরি ও আদুরি নামে দুই হিজড়া।

মাদুরির কাছে ভোট দেওয়ার অভিমত জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রথমবারের মতো আমি বাটনে ভোট দিয়েছি। আমার অনেক ভালো লাগছে বাটন সিস্টেমে ভোট দিতে পেরে। আজকে যে আনন্দটা পেয়েছি তা আমি বলে বোঝাতে পারব না।

আদুরি বলেন, আমার অনেক ভালো লাগছে ডিজিটাল সিস্টেমে ভোট দিতে পেরে। বাটন সিস্টেমটা আমাদের জন্য অনেক নিরাপদ। কারণ আগে বাবার ভোট কাকায় দিত, কাকার ভোট বাবায় দিত। আমরা নিজের ভোট দিতে পারতাম না। এখন আর সেই সিস্টেম নাই- আমি আমার ভোট দিব, বাবা বাবারটা, কাকা কাকারটা। প্রধানমন্ত্রী ভালো একটা সিস্টেম চালু করেছেন- আমরা এমনই ভোট চাই।

বাটনে ভোট দিলেন চরফ্যাশনের মাদুরি ও আদুরি

 চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘বাটন সিস্টামে ভোট দিছি, আমার অনেক আনন্দ লাগতাছে। এই প্রথম আঙুলের ছাপ দেওয়ায় টিভিতে আমার ছবি আইছে।’

প্রথমবারের মতো মাদুরি ও আদুরি নামে দুই হিজড়া আসন্ন পৌর নির্বাচনে বাটনে (ইভিএম) ভোট দিলেন।

ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে পেরে তারা অনেক আনন্দিত। মাদুরি ও আদুরি চরফ্যাশন পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের শরিফপাড়ার বাসিন্দা।

পঞ্চমধাপে চরফ্যাশন পৌরসভা নির্বাচনে চরফ্যাশন সরকারি টি-ব্রেট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় (টিভি স্কুল) কেন্দ্রে দুপুরে ভোট প্রদান করেন মাদুরি ও আদুরি নামে দুই হিজড়া।

মাদুরির কাছে ভোট দেওয়ার অভিমত জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রথমবারের মতো আমি বাটনে ভোট দিয়েছি। আমার অনেক ভালো লাগছে বাটন সিস্টেমে ভোট দিতে পেরে। আজকে যে আনন্দটা পেয়েছি তা আমি বলে বোঝাতে পারব না।

আদুরি বলেন, আমার অনেক ভালো লাগছে ডিজিটাল সিস্টেমে ভোট দিতে পেরে। বাটন সিস্টেমটা আমাদের জন্য অনেক নিরাপদ। কারণ আগে বাবার ভোট কাকায় দিত, কাকার ভোট বাবায় দিত। আমরা নিজের ভোট দিতে পারতাম না। এখন আর সেই সিস্টেম নাই- আমি আমার ভোট দিব, বাবা বাবারটা, কাকা কাকারটা। প্রধানমন্ত্রী ভালো একটা সিস্টেম চালু করেছেন- আমরা এমনই ভোট চাই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন