জঙ্গিদের ধরাশায়ী করে বাসযাত্রীদের ‘উদ্ধার’ (ভিডিও)
jugantor
সোয়াত টিমের মহড়া
জঙ্গিদের ধরাশায়ী করে বাসযাত্রীদের ‘উদ্ধার’ (ভিডিও)

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৫৬:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের বিশেষায়িত ‘সোয়াত' টিমের মাসব্যাপী মহড়া চলছে চট্টগ্রামে। যেখানে প্রদর্শিত হচ্ছে জঙ্গি হামলা কিংবা যেকোনো আক্রমণ মোকাবেলার কলাকৌশল। রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিম (সিআরটি) ও বোম ডিসপোজাল ইউনিটের যৌথ মহড়া পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার।

মহড়ায় দেখানো হয় কীভাবে জঙ্গিদের ধরাশায়ী করে বাসযাত্রীদের ‘উদ্ধার’ করা হয়।

রোববার নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনে অনুষ্ঠিত হয় এ মহড়া। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

সিআরটি ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট এন্টি টেরোরিজম অ্যাসিসটেন্স প্রোগ্রামের আওতায় মাসব্যাপী সিআরটি মেন্টরশিপ ও বিডিইউ মেন্টরশিপ ট্রেনিং কার্যক্রম চলছে। এতে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সোয়াত কমান্ডো, নেভি সিল কমান্ডো, এক্স ইউএস আর্মির প্রশিক্ষকরা।

রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেন, ২৪ বছর আমি পুলিশ অফিসার ছিলাম। যখন আমি পুলিশের সঙ্গে থাকি তখন আমার মনে হয় আমি পরিবারের সঙ্গে আছি। আমি আপনাদের ধন্যবাদ দিতে চাই- সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বৈশ্বিক যুদ্ধে আপনারাও আমাদের অংশীদার।
সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের রিজিওনাল সিকিউরিটি অফিসার প্রিসটিনা উইলিয়ামস ও সিনিয়র কাউন্টার টেরোরিজম অ্যাডভাইজার ক্রিসটোফার উইনগার্ড।

সালেহ মোহাম্মদ তানভির বলেন, সাইবার টিম আমরা ওপেন করছি। প্রশিক্ষণ শুরু হবে। ইতোমধ্যে সাইবার ফরেনসিক ল্যাব তৈরি হয়ে যাচ্ছে। যারা বৈশ্বিকভাবে সাইবারে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করছে তাদের সে ক্রাইমগুলো বের করার জন্য সিএমপি সক্ষমতা রাখে। মূলত উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা আশা করছি এ রকম টিম আরও পাব। জঙ্গিবাদ দমন, সন্ত্রাস দমন, বন্দি জিম্মি উদ্ধারসহ সব ধরনের সংকটময় পরিস্থিতি মোকাবেলায় এ ধরনের টিম গঠন করা হয়েছে।

সোয়াত টিমের মহড়া

জঙ্গিদের ধরাশায়ী করে বাসযাত্রীদের ‘উদ্ধার’ (ভিডিও)

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের বিশেষায়িত ‘সোয়াত' টিমের মাসব্যাপী মহড়া চলছে চট্টগ্রামে। যেখানে প্রদর্শিত হচ্ছে জঙ্গি হামলা কিংবা যেকোনো আক্রমণ মোকাবেলার কলাকৌশল। রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিম (সিআরটি) ও বোম ডিসপোজাল ইউনিটের যৌথ মহড়া পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার।

মহড়ায় দেখানো হয় কীভাবে জঙ্গিদের ধরাশায়ী করে বাসযাত্রীদের ‘উদ্ধার’ করা হয়।

রোববার নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনে অনুষ্ঠিত হয় এ মহড়া। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

সিআরটি ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট এন্টি টেরোরিজম অ্যাসিসটেন্স প্রোগ্রামের আওতায় মাসব্যাপী সিআরটি মেন্টরশিপ ও বিডিইউ মেন্টরশিপ ট্রেনিং কার্যক্রম চলছে। এতে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সোয়াত কমান্ডো, নেভি সিল কমান্ডো, এক্স ইউএস আর্মির প্রশিক্ষকরা।

রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেন, ২৪ বছর আমি পুলিশ অফিসার ছিলাম। যখন আমি পুলিশের সঙ্গে থাকি তখন আমার মনে হয় আমি পরিবারের সঙ্গে আছি। আমি আপনাদের ধন্যবাদ দিতে চাই- সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বৈশ্বিক যুদ্ধে আপনারাও আমাদের অংশীদার।
সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের রিজিওনাল সিকিউরিটি অফিসার প্রিসটিনা উইলিয়ামস ও সিনিয়র কাউন্টার টেরোরিজম অ্যাডভাইজার ক্রিসটোফার উইনগার্ড।

সালেহ মোহাম্মদ তানভির বলেন, সাইবার টিম আমরা ওপেন করছি। প্রশিক্ষণ শুরু হবে। ইতোমধ্যে সাইবার ফরেনসিক ল্যাব তৈরি হয়ে যাচ্ছে। যারা বৈশ্বিকভাবে সাইবারে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করছে তাদের সে ক্রাইমগুলো বের করার জন্য সিএমপি সক্ষমতা রাখে। মূলত উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা আশা করছি এ রকম টিম আরও পাব। জঙ্গিবাদ দমন, সন্ত্রাস দমন, বন্দি জিম্মি উদ্ধারসহ সব ধরনের সংকটময় পরিস্থিতি মোকাবেলায় এ ধরনের টিম গঠন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন