নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা, চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর
jugantor
নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা, চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর

  কুমিল্লা ব্যুরো  

০২ মার্চ ২০২১, ১৯:১৬:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার রাতে উপজেলার ধামতী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠুর রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা চালায় একদল সন্ত্রাসী।

এ সময় ওই কার্যালয়ে টাঙানো বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের ছবি ভাংচুর করা হয়। এছাড়া আসবাবপত্র, কম্পিউটার, টিভিসহ নানান সামগ্রীও ভাংচুর করা হয়। এতে এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, ২৮ ফেব্রুয়ারি রোববার দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন সম্পন্ন হয়। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। বেশ আলোচিত এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সঙ্গে নানা টানাপোড়েন সৃষ্টি হয় দলীয় নেতাকর্মীদের।

এ সুযোগে একটি স্বার্থান্বেষী মহল তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য দলে অভ্যন্তরীণ কোন্দল এবং বিভাজনের লক্ষ্যে মাঠে দৌড়ঝাঁপ শুরু করে। দলে বিভেদ সৃষ্টির লক্ষ্যে ধামতী ইউপির দলীয় চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠুর রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা শুরু হওয়ায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসন কর্তৃক কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ব্যাপক সংঘর্ষ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ধামতী ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠু বলেন, আমার রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। এলাকাবাসী তাদের চিনলেও ভয়ে নাম প্রকাশ করতে চায় না। নির্বাচনপরবর্তী এ সহিংসতা নিয়ে জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

দেবিদ্বার থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ধামতী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের কার্যালয় ভাংচুর করার বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো পক্ষকে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা করতে দেয়া হবে না।

নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা, চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর

 কুমিল্লা ব্যুরো 
০২ মার্চ ২০২১, ০৭:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার রাতে উপজেলার ধামতী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠুর রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা চালায় একদল সন্ত্রাসী।

এ সময় ওই কার্যালয়ে টাঙানো বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের ছবি ভাংচুর করা হয়। এছাড়া আসবাবপত্র, কম্পিউটার, টিভিসহ নানান সামগ্রীও ভাংচুর করা হয়। এতে এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, ২৮ ফেব্রুয়ারি রোববার দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন সম্পন্ন হয়। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। বেশ আলোচিত এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সঙ্গে নানা টানাপোড়েন সৃষ্টি হয় দলীয় নেতাকর্মীদের।

এ সুযোগে একটি স্বার্থান্বেষী মহল তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য দলে অভ্যন্তরীণ কোন্দল এবং বিভাজনের লক্ষ্যে মাঠে দৌড়ঝাঁপ শুরু করে। দলে বিভেদ সৃষ্টির লক্ষ্যে ধামতী ইউপির দলীয় চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠুর রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা শুরু হওয়ায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসন কর্তৃক কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ব্যাপক সংঘর্ষ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ধামতী ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠু বলেন, আমার রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। এলাকাবাসী তাদের চিনলেও ভয়ে নাম প্রকাশ করতে চায় না। নির্বাচনপরবর্তী এ সহিংসতা নিয়ে জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

দেবিদ্বার থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ধামতী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের কার্যালয় ভাংচুর করার বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো পক্ষকে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা করতে দেয়া হবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন