শিক্ষাবিদ হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা
jugantor
শিক্ষাবিদ হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা

  বরিশাল ব্যুরো  

০২ মার্চ ২০২১, ২১:৪৬:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকারি ব্রজমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর মো. হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বরিশালের সর্বস্তরের মানুষ। মঙ্গলবার দুপুরে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে নাগরিক শ্রদ্ধার আয়োজন করা হয়।

সেখানে লাশবাহী গাড়িতে করে নেয়া হয় সর্বজন শ্রদ্ধেয় প্রফেসর মো. হানিফকে। তার মরদেহে প্রথম শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

এরপর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. ছাদেকুল আরেফিন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন, বরিশাল মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল, বরিশাল প্রেস ক্লাব, বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটি, বরিশাল সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, বরিশাল জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ প্রফেসর মো. হানিফের মরদেহে শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন।

সরকারি ব্রজমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ স ম ইমানুল হাকিম বলেন, ১৯৮৮ সাল থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত হানিফ স্যার ব্রজমোহন কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি এই কলেজের উন্নয়নে ভূয়সী ভূমিকা রাখেন। তার হাত ধরেই ব্রজমোহন কলেজ উন্নয়নের রূপ পায়। এছাড়া শিক্ষার প্রসারে তার যে ভূমিকা ছিল তা অতুলনীয়। তিনি আজীবন বেঁচে থাকবেন সাধারণ মানুষের মাঝে। এ অঞ্চলে শিক্ষা প্রসারে তার ভূমিকা ভোলার নয়।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বাহাউদ্দিন গোলাপ বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে হানিফ স্যারের ভূমিকা ছিল ব্যাপক। তার মৃত্যুতে আমরা আমাদের অভিভাবক হারিয়েছি বলে মনে করছি। আমাদের শিক্ষার বাতিঘর হিসেবে তাকেই আমরা চিনি। তাকে শিক্ষকদেরও শিক্ষক বলা হতো বরিশালে।

প্রফেসর মো. হানিফ দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। সোমবার রাতে রাজধানীর ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

শিক্ষাবিদ হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা

 বরিশাল ব্যুরো 
০২ মার্চ ২০২১, ০৯:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকারি ব্রজমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর মো. হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বরিশালের সর্বস্তরের মানুষ। মঙ্গলবার দুপুরে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে নাগরিক শ্রদ্ধার আয়োজন করা হয়।

সেখানে লাশবাহী গাড়িতে করে নেয়া হয় সর্বজন শ্রদ্ধেয় প্রফেসর মো. হানিফকে। তার মরদেহে প্রথম শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

এরপর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. ছাদেকুল আরেফিন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন, বরিশাল মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল, বরিশাল প্রেস ক্লাব, বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটি, বরিশাল সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, বরিশাল জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ প্রফেসর মো. হানিফের মরদেহে শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন।

সরকারি ব্রজমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ স ম ইমানুল হাকিম বলেন, ১৯৮৮ সাল থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত হানিফ স্যার ব্রজমোহন কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি এই কলেজের উন্নয়নে ভূয়সী ভূমিকা রাখেন। তার হাত ধরেই ব্রজমোহন কলেজ উন্নয়নের রূপ পায়। এছাড়া শিক্ষার প্রসারে তার যে ভূমিকা ছিল তা অতুলনীয়। তিনি আজীবন বেঁচে থাকবেন সাধারণ মানুষের মাঝে। এ অঞ্চলে শিক্ষা প্রসারে তার ভূমিকা ভোলার নয়।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বাহাউদ্দিন গোলাপ বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে হানিফ স্যারের ভূমিকা ছিল ব্যাপক। তার মৃত্যুতে আমরা আমাদের অভিভাবক হারিয়েছি বলে মনে করছি। আমাদের শিক্ষার বাতিঘর হিসেবে তাকেই আমরা চিনি। তাকে শিক্ষকদেরও শিক্ষক বলা হতো বরিশালে।

প্রফেসর মো. হানিফ দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। সোমবার রাতে রাজধানীর ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন