ধর্ষণ মামলায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বহিষ্কার
jugantor
ধর্ষণ মামলায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বহিষ্কার

  পরশুরাম ও ফুলগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি  

০৩ মার্চ ২০২১, ১৩:৪৩:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

নূরুল ইসলাম

ধর্ষণ মামলার অভিযোগপত্র নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত গ্রহণ করায় ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা নূরুল ইসলামকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. আবু জাফর রিপন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়। ওই চিঠির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফেনী জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।

এ বিষয়ে ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম জানান, স্থানীয় সরকার বিভাগের ওই আদেশের বিরুদ্ধে তিনি স্বল্পসময়ের মধ্যে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

তার বিরুদ্ধে মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে— ২০১৮ সালের ১২ এপ্রিল এক নারী তার শিশু ভাগিনাকে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে একটি বিচার নিয়ে যান। চেয়ারম্যান শিশুটিকে দোকানে পাঠিয়ে বিচারপ্রার্থী নারীকে ধর্ষণ করেন। পরে ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করান স্বজনরা। এ ঘটনায় নারীর শাশুড়ি ফুলগাজী থানায় মামলা করলে পুলিশ চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে।

ধর্ষণ মামলায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বহিষ্কার

 পরশুরাম ও ফুলগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি 
০৩ মার্চ ২০২১, ০১:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নূরুল ইসলাম
নূরুল ইসলাম। ছবি: যুগান্তর

ধর্ষণ মামলার অভিযোগপত্র নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত গ্রহণ করায় ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা নূরুল ইসলামকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. আবু জাফর রিপন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়। ওই চিঠির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফেনী জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।  

এ বিষয়ে ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম জানান, স্থানীয় সরকার বিভাগের ওই আদেশের বিরুদ্ধে তিনি স্বল্পসময়ের মধ্যে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

তার বিরুদ্ধে মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে— ২০১৮ সালের ১২ এপ্রিল এক নারী তার শিশু ভাগিনাকে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে একটি বিচার নিয়ে যান। চেয়ারম্যান শিশুটিকে দোকানে পাঠিয়ে বিচারপ্রার্থী নারীকে ধর্ষণ করেন। পরে ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করান স্বজনরা। এ ঘটনায় নারীর শাশুড়ি ফুলগাজী থানায় মামলা করলে পুলিশ চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন