হিজড়া বেশে নাচগান করে জীবনযাপন করতেন নিহত সেই যুবক
jugantor
হিজড়া বেশে নাচগান করে জীবনযাপন করতেন নিহত সেই যুবক

  অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি  

০৩ মার্চ ২০২১, ২১:০৫:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের অভয়নগর উপজেলার ধোপাদি গ্রামের কবিরাজপাড়ায় একটি বাগানের মেহগনি গাছে বাঁধা লাশের পরিচয় মিলেছে। তিনি আলমগীর হাওলাদার (৪৫)। হিজড়া বেশে নাচগান করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি।

নিহত আলমগীর হাওলাদার নওয়াপাড়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বৌবাজার এলাকার মৃত সামছু হাওলাদারের ছেলে।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত আলমগীর হাওলাদার প্রতিবেশী তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) শাহিনের সঙ্গে মিলে চারজনের একটি দলে নাচগান করে জীবনজীবিকা নির্বাহ করতেন। তাছাড়া তিনি মাঝে মধ্যে রংমিস্ত্রির কাজও করতেন।

ধোপাদি কবিরাজপাড়ার বাসিন্দা মো. ফারুক হোসেন কবিরাজ জানান, সকালে তাদের বাড়ির পাশের বাগানে একটি মেহগনি গাছের সঙ্গে লাশটি বাঁধা অবস্থায় দেখা যায়। গাছে বাঁধা যুবকের মুখমণ্ডল তার পরনের কাপড়-চোপড় দিয়ে এবং কোমরের বেল্ট দিয়ে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, কে বা কারা তার গলায় মাফলার ও জামাকাপড় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার লাশটি গাছে বেঁধে রাখে। থানায় খবর দেয়ার পর পুলিশ সকাল ১০টার সময় ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে। পরে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে যশোর মর্গে পাঠানো হয়।

অভয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, নিহত যুবকের পরিচয় মিলেছে। তার লাশ যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে পুলিশ জোর তদন্ত শুরু করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

হিজড়া বেশে নাচগান করে জীবনযাপন করতেন নিহত সেই যুবক

 অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি 
০৩ মার্চ ২০২১, ০৯:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের অভয়নগর উপজেলার ধোপাদি গ্রামের কবিরাজপাড়ায় একটি বাগানের মেহগনি গাছে বাঁধা লাশের পরিচয় মিলেছে। তিনি আলমগীর হাওলাদার (৪৫)। হিজড়া বেশে নাচগান করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি।

নিহত আলমগীর হাওলাদার নওয়াপাড়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বৌবাজার এলাকার মৃত সামছু হাওলাদারের ছেলে।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত আলমগীর হাওলাদার প্রতিবেশী তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) শাহিনের সঙ্গে মিলে চারজনের একটি দলে নাচগান করে জীবনজীবিকা নির্বাহ করতেন। তাছাড়া তিনি মাঝে মধ্যে রংমিস্ত্রির কাজও করতেন।

ধোপাদি কবিরাজপাড়ার বাসিন্দা মো. ফারুক হোসেন কবিরাজ জানান, সকালে তাদের বাড়ির পাশের বাগানে একটি মেহগনি গাছের সঙ্গে লাশটি বাঁধা অবস্থায় দেখা যায়। গাছে বাঁধা যুবকের মুখমণ্ডল তার পরনের কাপড়-চোপড় দিয়ে এবং কোমরের বেল্ট দিয়ে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, কে বা কারা তার গলায় মাফলার ও জামাকাপড় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার লাশটি গাছে বেঁধে রাখে। থানায় খবর দেয়ার পর পুলিশ সকাল ১০টার সময় ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে। পরে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে যশোর মর্গে পাঠানো হয়।

অভয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, নিহত যুবকের পরিচয় মিলেছে। তার লাশ যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে পুলিশ জোর তদন্ত শুরু করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন