আসামিকে জড়িয়ে ধরে আহত পুলিশ সদস্য 
jugantor
আসামিকে জড়িয়ে ধরে আহত পুলিশ সদস্য 

  যুগান্তর প্রতিবেদন, সাভার  

০৩ মার্চ ২০২১, ২১:৪৭:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার সাভারে পরিবহন চাঁদাবাজ সাব্বির হোসেন নামে এক আসামিকে ধরতে তাকে জড়িয়ে ধরলে তার হাতে থাকা ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন পুলিশ কনস্টেবল রাব্বি।

তাকে দ্রুত উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে পুলিশ বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে। বুধবার দুপুরে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কামাল হোসেন (৩৩), সাব্বির হোসেন (২৫), জহিরুল ইসলাম (৩৮), লাল মিয়া (২০), মোহাম্মদ আলী (২৮), আব্দুর রহিম বাবু (৩২), রাশেদ (২৬), নজরুল ইসলাম খান (৩৮), আল আমিন (৩০) ও সুজন শিকদার (৪৩)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর বিমান বিল্ডিংয়ের পাশে ঠিকানা পরিবহন বাসের কন্ট্রাক্টর ইকবাল হোসেনকে সন্ত্রাসীরা চাঁদার দাবিতে হাত-পা বেঁধে মারধর করছে- এমন সংবাদ ৯৯৯ এর মাধ্যমে জানতে পেরে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পার্শ্ববর্তী একটি ছন বনের মধ্যে ঘাপটি মেরে পালিয়ে থাকে সাব্বির হোসেন, জহিরুল ইসলাম, লাল মিয়া, মোহাম্মদ আলী, আব্দুর রহিম বাবু, রাশেদ, নজরুল ইসলাম খান, আল আমিন, কামাল হোসেন ও সুজন শিকদারসহ বেশ কয়েকজন।

এ সময় পুলিশ কনস্টেবল রাব্বি পলাতক সাব্বির হোসেনকে জড়িয়ে ধরলে সাব্বিরের হাতে থাকা ছুরি দিয়ে কনস্টেবল রাব্বিকে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে পাশে থাকা পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল থেকে সাব্বিরসহ দুইজনকে আটক করা হয়।

সাভার মডেল থানার ওসি এএফএম সায়েদ বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সাভার মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে একটির বাদী পুলিশ এবং অপরটির বাদী ভুক্তভোগী বাসের কন্ট্রাক্টর ইকবাল হোসেন। পৃথক দুটি মামলায় ১০ জনকে গ্রেফতার করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

আসামিকে জড়িয়ে ধরে আহত পুলিশ সদস্য 

 যুগান্তর প্রতিবেদন, সাভার 
০৩ মার্চ ২০২১, ০৯:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার সাভারে পরিবহন চাঁদাবাজ সাব্বির হোসেন নামে এক আসামিকে ধরতে তাকে জড়িয়ে ধরলে তার হাতে থাকা ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন পুলিশ কনস্টেবল রাব্বি।

তাকে দ্রুত উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে পুলিশ বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে। বুধবার দুপুরে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কামাল হোসেন (৩৩), সাব্বির হোসেন (২৫), জহিরুল ইসলাম (৩৮), লাল মিয়া (২০), মোহাম্মদ আলী (২৮), আব্দুর রহিম বাবু (৩২), রাশেদ (২৬), নজরুল ইসলাম খান (৩৮), আল আমিন (৩০) ও সুজন শিকদার (৪৩)। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর বিমান বিল্ডিংয়ের পাশে ঠিকানা পরিবহন বাসের কন্ট্রাক্টর ইকবাল হোসেনকে সন্ত্রাসীরা চাঁদার দাবিতে হাত-পা বেঁধে মারধর করছে- এমন সংবাদ ৯৯৯ এর মাধ্যমে জানতে পেরে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পার্শ্ববর্তী একটি ছন বনের মধ্যে ঘাপটি মেরে পালিয়ে থাকে সাব্বির হোসেন, জহিরুল ইসলাম, লাল মিয়া, মোহাম্মদ আলী, আব্দুর রহিম বাবু, রাশেদ, নজরুল ইসলাম খান, আল আমিন, কামাল হোসেন ও সুজন শিকদারসহ বেশ কয়েকজন। 

এ সময় পুলিশ কনস্টেবল রাব্বি পলাতক সাব্বির হোসেনকে জড়িয়ে ধরলে সাব্বিরের হাতে থাকা ছুরি দিয়ে কনস্টেবল রাব্বিকে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে পাশে থাকা পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল থেকে সাব্বিরসহ দুইজনকে আটক করা হয়। 

সাভার মডেল থানার ওসি এএফএম সায়েদ বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সাভার মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে একটির বাদী পুলিশ এবং অপরটির বাদী ভুক্তভোগী বাসের কন্ট্রাক্টর ইকবাল হোসেন। পৃথক দুটি মামলায় ১০ জনকে গ্রেফতার করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন