১০ মাস পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সাক্ষাতের সুযোগ
jugantor
১০ মাস পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সাক্ষাতের সুযোগ

  কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি  

০৩ মার্চ ২০২১, ২৩:০২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের ৮ এপ্রিল সারা দেশে কারাগারগুলোতে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় প্রায় ১০ মাস পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারসহ দেশের সব কারাগারে আরোপিত এ ব্যবস্থা অবশেষে তুলে দেয়া হয়েছে।

সোমবার থেকে কারাবন্দিরা স্বজনদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুব আলম। তিনি বলেন, কারাবন্দিদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে ওই সময়ের পরিস্থিতি বিবেচনায় কারা কর্তৃপক্ষ গত বছরের ৮ এপ্রিল বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ ঘোষণা করে। বর্তমানে পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় ১ মার্চ থেকে সাক্ষাৎ শুরু হয়েছে। তবে কারাগারে আসা নতুন বন্দিদের ক্ষেত্রে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম এখনো বলবত আছে। পাশাপাশি কারা অভ্যন্তর থেকে স্বজনদের সঙ্গে বন্দিরা সপ্তাহে একবার সর্বোচ্চ ৫ মিনিটি মোবাইলে কথা বলার যে সুযোগ পেয়ে আসছেন সেটাও বহাল থাকছে।

কারাগার সূত্রে জানা যায়, বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ শুরু হলেও কিছু নিয়ম আরোপ করা হয়েছে। প্রতিজন বন্দির সঙ্গে একজন স্বজন সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাতের সুযোগ থাকছে।

ছোটভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে কারাগার থেকে বেরিয়ে শফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, অর্থ আত্মসাতের এক মামলায় তার ভাই দীর্ঘদিন ধরে কারাবন্দি। এর মধ্যে কোভিডের কারণে সাক্ষাৎ বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ১০ মাস পর আজকে ছোটভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছে। ওকে সরাসরি দেখে অনেক ভালো লাগছে।

তিনি আরও বলেন, সাক্ষাৎ শুরু হলেও কিছুটা নিয়মকানুন মানতে হচ্ছে। তবে সাক্ষাৎপ্রার্থীর সংখ্যাও অনেক কম।

১০ মাস পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সাক্ষাতের সুযোগ

 কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি 
০৩ মার্চ ২০২১, ১১:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের ৮ এপ্রিল সারা দেশে কারাগারগুলোতে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় প্রায় ১০ মাস পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারসহ দেশের সব কারাগারে আরোপিত এ ব্যবস্থা অবশেষে তুলে দেয়া হয়েছে।

সোমবার থেকে কারাবন্দিরা স্বজনদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুব আলম। তিনি বলেন, কারাবন্দিদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে ওই সময়ের পরিস্থিতি বিবেচনায় কারা কর্তৃপক্ষ গত বছরের ৮ এপ্রিল বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ ঘোষণা করে। বর্তমানে পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় ১ মার্চ থেকে সাক্ষাৎ শুরু হয়েছে। তবে কারাগারে আসা নতুন বন্দিদের ক্ষেত্রে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম এখনো বলবত আছে। পাশাপাশি কারা অভ্যন্তর থেকে স্বজনদের সঙ্গে বন্দিরা সপ্তাহে একবার সর্বোচ্চ ৫ মিনিটি মোবাইলে কথা বলার যে সুযোগ পেয়ে আসছেন সেটাও বহাল থাকছে।

কারাগার সূত্রে জানা যায়, বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ শুরু হলেও কিছু নিয়ম আরোপ করা হয়েছে। প্রতিজন বন্দির সঙ্গে একজন স্বজন সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাতের সুযোগ থাকছে।

ছোটভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে কারাগার থেকে বেরিয়ে শফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, অর্থ আত্মসাতের এক মামলায় তার ভাই দীর্ঘদিন ধরে কারাবন্দি। এর মধ্যে কোভিডের কারণে সাক্ষাৎ বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ১০ মাস পর আজকে ছোটভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছে। ওকে সরাসরি দেখে অনেক ভালো লাগছে।

তিনি আরও বলেন, সাক্ষাৎ শুরু হলেও কিছুটা নিয়মকানুন মানতে হচ্ছে। তবে সাক্ষাৎপ্রার্থীর সংখ্যাও অনেক কম।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন