৩ কোটি টাকার ভয়ঙ্কর ‘ক্রিস্টাল মেথ’ জব্দ
jugantor
৩ কোটি টাকার ভয়ঙ্কর ‘ক্রিস্টাল মেথ’ জব্দ

  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

০৪ মার্চ ২০২১, ১২:৩৬:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

তিন কোটি টাকার ভয়ংকর ‘ক্রিস্টাল মেথ’ জব্দ

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় দুই কেজি ভয়ঙ্কর ক্রিস্টাল মিথাইল অ্যামফিটামিন মাদক আইসসহ একজনকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফের বিশেষ জোনের সদস্যরা বুধবার দুপুরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে ওই ভয়ঙ্কর মাদকসহ আটক করা হয়।

আটক ওই ব্যক্তির নাম মো. আব্দুল্লাহ। সে ওই এলাকার গোলাম নবীর ছেলে। এ সময় আব্দুর রহমান নামে তার এক সহোদর পালিয়ে যায়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফের বিশেষ জোনের ইন্সপেক্টর জিল্লুর রহমান বৃহস্পতিবার সকালে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, বেশ কিছু দিন ধরে মিয়ানমার থেকে শক্তিশালী মাদক আইস বা ‘ক্রিস্টাল মেথ’-এর চালান বাংলাদেশে পাচার হয়ে আসছে—এমন সংবাদের ভিত্তিতে সম্ভাব্য স্থানে গোপনে নজর রাখা হচ্ছিল।

বুধবার দুপুরে জাদিমুড়া এলাকায় দুই সহোদরের বাড়িতে আইসের চালান মজুদ রয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী পরিচালক সিরাজুল মোস্তফার নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে দুই কেজি আইস উদ্ধার করা হয় আটক করা হয় মো. আব্দুল্লাহকে। এ সময় তার সহোদর আব্দুর রহমান পালিয়ে যায়।

পরে মাদকের চালান ল্যাবরেটরিতে পাঠিয়ে নিশ্চিত হন উদ্ধার মাদক শক্তিশালী আইস, যা ভয়ংঙ্কর মাদক ইয়াবার চেয়ে বহুগুণ শক্তিশালী বলে জানান তিনি।

এটি ইতোমধ্যে দেশে উদ্ধার হওয়া আইসের সবচেয়ে বড় চালান। যার আনুমানিক মূল্য তিন কোটি টাকার মতো বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এর আগে ঢাকায় ৬০০ গ্রাম আইস উদ্ধার করা হয়েছিল। আটক করা হয়েছিল বেশ কয়েকজনকে।

এ ঘটনায় আটক যুবককে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করে মাদক আইনে মামলা রুজু করার প্রক্রিয়া চলছে।

৩ কোটি টাকার ভয়ঙ্কর ‘ক্রিস্টাল মেথ’ জব্দ

 টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
০৪ মার্চ ২০২১, ১২:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তিন কোটি টাকার ভয়ংকর ‘ক্রিস্টাল মেথ’ জব্দ
ছবি: যুগান্তর

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় দুই কেজি ভয়ঙ্কর ক্রিস্টাল মিথাইল অ্যামফিটামিন মাদক আইসসহ একজনকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফের বিশেষ জোনের সদস্যরা বুধবার দুপুরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে ওই ভয়ঙ্কর মাদকসহ আটক করা হয়।

আটক ওই ব্যক্তির নাম মো. আব্দুল্লাহ। সে ওই এলাকার গোলাম নবীর ছেলে। এ সময় আব্দুর রহমান নামে তার এক সহোদর পালিয়ে যায়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফের বিশেষ জোনের ইন্সপেক্টর জিল্লুর রহমান বৃহস্পতিবার সকালে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, বেশ কিছু দিন ধরে মিয়ানমার থেকে শক্তিশালী মাদক আইস বা ‘ক্রিস্টাল মেথ’-এর চালান বাংলাদেশে পাচার হয়ে আসছে—এমন সংবাদের ভিত্তিতে সম্ভাব্য স্থানে গোপনে নজর রাখা হচ্ছিল।

বুধবার দুপুরে জাদিমুড়া এলাকায় দুই সহোদরের বাড়িতে আইসের চালান মজুদ রয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী পরিচালক সিরাজুল মোস্তফার নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে দুই কেজি আইস উদ্ধার করা হয় আটক করা হয় মো. আব্দুল্লাহকে। এ সময় তার সহোদর আব্দুর রহমান পালিয়ে যায়।

পরে মাদকের চালান ল্যাবরেটরিতে পাঠিয়ে নিশ্চিত হন উদ্ধার মাদক শক্তিশালী আইস, যা ভয়ংঙ্কর মাদক ইয়াবার চেয়ে বহুগুণ শক্তিশালী বলে জানান তিনি।

এটি ইতোমধ্যে দেশে উদ্ধার হওয়া আইসের সবচেয়ে বড় চালান। যার আনুমানিক মূল্য তিন কোটি টাকার মতো বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এর আগে ঢাকায় ৬০০ গ্রাম আইস উদ্ধার করা হয়েছিল। আটক করা হয়েছিল বেশ কয়েকজনকে।  

এ ঘটনায় আটক যুবককে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করে মাদক আইনে মামলা রুজু করার প্রক্রিয়া চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন