এক ঘুষিতেই ব্যাংকার মওদুদকে হত্যা করে হাসনুর
jugantor
এক ঘুষিতেই ব্যাংকার মওদুদকে হত্যা করে হাসনুর

  সিলেট ব্যুরো  

০৪ মার্চ ২০২১, ২২:২৬:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটে এক ঘুষিতেই ব্যাংকার মওদুদ আহমেদকে হত্যার কথা আদালতে স্বীকার করেছেন মামলার প্রধান আসামি সিএনজি অটোরিকশাচালক নোমান হাসনুর।

তিনি ১৬৪ ধারায় আদালতকে জানান, ভাড়া নিয়ে কথাকাটাকাটির জেরে ব্যাংকার মওদুদ আহমেদকে জোরে ঘুষি মারলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। অবস্থা দেখে ভয়ে তিনি ওখান থেকে পালিয়ে যান। পরে খবর পান মওদুদ মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এর বিচারক সাইফুর রহমান এই জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, জবানবন্দি রেকর্ডের পর আসামি নোমান হাসনুরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে ব্যাংকার মওদুদ আহমেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি নোমান হাসনুর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। সেদিন পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করলে আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড চলাকালে প্রথমে ১৬১ ধারায় হত্যার স্বীকারোক্তি দেন নোমান হাসনুর। বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করলে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন ১৬৪ ধারায়।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর প্রাণকেন্দ্র কোর্ট পয়েন্টের সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে হত্যা করা হয় মওদুদ আহমেদকে। তিনি জৈন্তাপুরের হরিপুর গ্যাস ফিল্ড অগ্রণী ব্যাংক শাখার সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) ছিলেন। হত্যার পর সিএনজি অটোরিকশাচালক নোমান হাসনুরকে প্রধান আসামি করে সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

এক ঘুষিতেই ব্যাংকার মওদুদকে হত্যা করে হাসনুর

 সিলেট ব্যুরো 
০৪ মার্চ ২০২১, ১০:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটে এক ঘুষিতেই ব্যাংকার মওদুদ আহমেদকে হত্যার কথা আদালতে স্বীকার করেছেন মামলার প্রধান আসামি সিএনজি অটোরিকশাচালক নোমান হাসনুর।

তিনি ১৬৪ ধারায় আদালতকে জানান, ভাড়া নিয়ে কথাকাটাকাটির জেরে ব্যাংকার মওদুদ আহমেদকে জোরে ঘুষি মারলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। অবস্থা দেখে ভয়ে তিনি ওখান থেকে পালিয়ে যান। পরে খবর পান মওদুদ মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এর বিচারক সাইফুর রহমান এই জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, জবানবন্দি রেকর্ডের পর আসামি নোমান হাসনুরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে ব্যাংকার মওদুদ আহমেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি নোমান হাসনুর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। সেদিন পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করলে আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড চলাকালে প্রথমে ১৬১ ধারায় হত্যার স্বীকারোক্তি দেন নোমান হাসনুর। বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করলে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন ১৬৪ ধারায়।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর প্রাণকেন্দ্র কোর্ট পয়েন্টের সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে হত্যা করা হয় মওদুদ আহমেদকে। তিনি জৈন্তাপুরের হরিপুর গ্যাস ফিল্ড অগ্রণী ব্যাংক শাখার সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) ছিলেন। হত্যার পর সিএনজি অটোরিকশাচালক নোমান হাসনুরকে প্রধান আসামি করে সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন