বুড়িচং সরকারি হাসপাতালে আগুন
jugantor
বুড়িচং সরকারি হাসপাতালে আগুন

  বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

০৪ মার্চ ২০২১, ২৩:২১:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় দিগ্বিদিক ছোটাছোটি করে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন মানুষ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালের নিচতলার একটি কক্ষ থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। পরে ১ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যায় হাসপাতালের নিচতলার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা কক্ষে আগুন দেখে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিস সদস্যদের খবর দেয়। পরে তারা এসে এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালজুড়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এতে হুড়োহুড়ির সময় বেশ কয়েকজন রোগী ও তার স্বজনরা আহত হন হয় বলে জানা যায়।আগুনের সূত্রপাত বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে।বেশকিছু ঔষুধ এবং একটি এক্স-রে মেশিন পুড়ে যায়।

হাসপাতালের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ডাক্তার মীর হোসেন মিঠু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি।তবে হাসপাতালের বেশকিছু ওষুধ এবং একটি এক্স-রে মেশিন পুড়ে যায়।ক্ষয়ক্ষতি পরিমান প্রায় ৫০ হাজার অধিক হবে।

ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ সাবিনা ইয়াছমিন।

বুড়িচং সরকারি হাসপাতালে আগুন

 বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
০৪ মার্চ ২০২১, ১১:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় দিগ্বিদিক ছোটাছোটি করে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন মানুষ।  

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালের নিচতলার একটি কক্ষ থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। পরে ১ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যায় হাসপাতালের নিচতলার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা কক্ষে আগুন দেখে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিস সদস্যদের খবর দেয়। পরে তারা এসে এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। 

খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালজুড়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এতে হুড়োহুড়ির সময় বেশ কয়েকজন রোগী ও তার স্বজনরা আহত হন হয় বলে জানা যায়।আগুনের সূত্রপাত বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে।বেশকিছু ঔষুধ এবং একটি এক্স-রে মেশিন পুড়ে যায়।

হাসপাতালের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ডাক্তার মীর হোসেন মিঠু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি।তবে হাসপাতালের বেশকিছু ওষুধ এবং একটি এক্স-রে মেশিন পুড়ে যায়।ক্ষয়ক্ষতি পরিমান প্রায় ৫০ হাজার অধিক হবে।

ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ সাবিনা ইয়াছমিন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন