ডাকাত অপবাদ দিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিককে হত্যা
jugantor
ডাকাত অপবাদ দিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিককে হত্যা

  তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

০৫ মার্চ ২০২১, ২২:১৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার তিতাসে প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে প্রেমিককে ডাকাত অপবাদ দিয়ে আরিফ (২৫) এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের মনির হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আরিফ দাউদকান্দি উপজেলার সব্জিকান্দি গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের মোক্তার হোসেন সৌদি আরবে থাকেন। এই সুযোগে স্ত্রী মৌসুমির সঙ্গে আরিফের দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারই ধারাবাহিকতায় আরিফ মৌসুমির সঙ্গে দেখা করতে আসলে, স্থানীয় জনতা তাকে ডাকাত বলে অপবাদ দিয়ে গণপিটুনি দেয়। এ সময় তিতাসে ডাকাতের উপদ্রব বৃদ্ধি পাওয়ায় একদল গ্রামবাসী ডাকাত পাহারা দিচ্ছিল।

স্থানীরা মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে দাউদকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা অপারগতা জানান। তার পর তাকে নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের উদ্দেশ্যে রওনা দিলে কাচঁপুর ব্রিজের কাছে তার মৃত্যু হয়।

নিহতের বোন জানান, এটি একটি যড়যন্ত্রমূলক হত্যা, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমি এ হত্যার বিচার চাই।

এ ব্যাপারে তিতাস থানার ওসি সৈয়দ আহসানুল ইসলাম জানান, উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের প্রবাসী মোক্তার হোসেনের স্ত্রী মৌসুমির সঙ্গে আরিফের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। সে কারণে আরিফ মৌসুমির সঙ্গে দেখা করতে আসে, এ সময় ডাকাত পাহারাদাররা তাকে ডাকাত বলে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেছি।

ডাকাত অপবাদ দিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিককে হত্যা

 তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
০৫ মার্চ ২০২১, ১০:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার তিতাসে প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে প্রেমিককে ডাকাত অপবাদ দিয়ে আরিফ (২৫) এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের মনির হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আরিফ দাউদকান্দি উপজেলার সব্জিকান্দি গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের মোক্তার হোসেন সৌদি আরবে থাকেন। এই সুযোগে স্ত্রী মৌসুমির সঙ্গে আরিফের দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারই ধারাবাহিকতায় আরিফ মৌসুমির সঙ্গে দেখা করতে আসলে, স্থানীয় জনতা তাকে ডাকাত বলে অপবাদ দিয়ে গণপিটুনি দেয়। এ সময় তিতাসে ডাকাতের উপদ্রব বৃদ্ধি পাওয়ায় একদল গ্রামবাসী ডাকাত পাহারা দিচ্ছিল।

স্থানীরা মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে দাউদকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা অপারগতা জানান। তার পর তাকে নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের উদ্দেশ্যে রওনা দিলে কাচঁপুর ব্রিজের কাছে তার মৃত্যু হয়।

নিহতের বোন জানান, এটি একটি যড়যন্ত্রমূলক হত্যা, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমি এ হত্যার বিচার চাই।

এ ব্যাপারে তিতাস থানার ওসি সৈয়দ আহসানুল ইসলাম জানান, উপজেলা চরকাঠালিয়া গ্রামের প্রবাসী মোক্তার হোসেনের স্ত্রী মৌসুমির সঙ্গে আরিফের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। সে কারণে আরিফ মৌসুমির সঙ্গে দেখা করতে আসে, এ সময় ডাকাত পাহারাদাররা তাকে ডাকাত বলে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন