বিরামপুরে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব, একদিনে হাসপাতালে ১৪ শিশু
jugantor
বিরামপুরে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব, একদিনে হাসপাতালে ১৪ শিশু

  বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি  

০৯ মার্চ ২০২১, ১১:৫২:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

হাসপাতালে রোগী

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে ১৪ শিশু ভর্তি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ শোভন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিনেই রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে সরেজমিন দেখা যায়, শিশু ওয়ার্ডে কোনো জায়গা নেই। হাসপাতালের বেড ছাড়াও মেঝেতে সারি সারিভাবে শিশুদের নিয়ে শুয়ে বসে আছেন মায়েরা। তাদের চোখে মুখে বিষণ্নতার ছাপ।

কুশাখালী গ্রামের আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী খাতিজা বেগম তার ছেলেকে বুকের ওপর রেখে কান্না কান্না কণ্ঠে বলেন, আমার বাবা কয়েক দিন আগে মারা গেছেন, আমি বাবার বাড়িতে ছিলাম, তাই ছেলের ভালোভাবে যত্ন নিতে পারিনি। ছেলে আমার নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র নার্স মনজুয়ারা বেগম বলেন, প্রতিদিনই রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজকেই ১৪ শিশু ডায়রিয়াজনিত রোগে ভর্তি হয়েছে। আমরা অতিযত্নের সঙ্গে শিশুদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করছি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক আবুল কাশেম বলেন, ইদানীং আমাদের এই হাসপাতালে প্রচুর ডায়রিয়ার রোগী দেখা যাচ্ছে। সম্ভাবত আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে ডায়রিয়ারজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত জটিল কোনো সমস্যা দেখা যায়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ শোভন জানান, প্রতিদিন রোগী বৃদ্ধি পেলেও আমরা সার্বক্ষণিক চিকিৎসা ও সেবা প্রদান করছি। যাতে রোগীর কোনো প্রকার সমস্যা না হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোলায়মান হোসেন মেহেদী জানান, প্রতি বছরই আবহাওয়া পরিবর্তন হলেই ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন রোগের লক্ষণ শিশুসহ বড়দেরও দেখা দেয়।

প্রতিদিন রোগী আসছে। এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ও জনবল কম থাকায় সেবা প্রদানে অসুবিধা হচ্ছে; তার পরও অতিযত্নের সঙ্গে রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বিরামপুরে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব, একদিনে হাসপাতালে ১৪ শিশু

 বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি 
০৯ মার্চ ২০২১, ১১:৫২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হাসপাতালে রোগী
ছবি: যুগান্তর

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে ১৪ শিশু ভর্তি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ শোভন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিনেই রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে সরেজমিন দেখা যায়, শিশু ওয়ার্ডে কোনো জায়গা নেই। হাসপাতালের বেড ছাড়াও মেঝেতে সারি সারিভাবে শিশুদের নিয়ে শুয়ে বসে আছেন মায়েরা। তাদের চোখে মুখে বিষণ্নতার ছাপ।

কুশাখালী গ্রামের আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী খাতিজা বেগম তার ছেলেকে বুকের ওপর রেখে কান্না কান্না কণ্ঠে বলেন, আমার বাবা কয়েক দিন আগে মারা গেছেন, আমি বাবার বাড়িতে ছিলাম, তাই ছেলের ভালোভাবে যত্ন নিতে পারিনি। ছেলে আমার নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র নার্স মনজুয়ারা বেগম বলেন, প্রতিদিনই রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজকেই ১৪ শিশু ডায়রিয়াজনিত রোগে ভর্তি হয়েছে। আমরা অতিযত্নের সঙ্গে শিশুদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করছি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক আবুল কাশেম বলেন, ইদানীং আমাদের এই হাসপাতালে প্রচুর ডায়রিয়ার রোগী দেখা যাচ্ছে। সম্ভাবত আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে ডায়রিয়ারজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত জটিল কোনো সমস্যা দেখা যায়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ শোভন জানান, প্রতিদিন রোগী বৃদ্ধি পেলেও আমরা সার্বক্ষণিক চিকিৎসা ও সেবা প্রদান করছি। যাতে রোগীর কোনো প্রকার সমস্যা না হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোলায়মান হোসেন মেহেদী জানান, প্রতি বছরই আবহাওয়া পরিবর্তন হলেই ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন রোগের লক্ষণ শিশুসহ বড়দেরও দেখা দেয়।

প্রতিদিন রোগী আসছে। এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ও জনবল কম থাকায় সেবা প্রদানে অসুবিধা হচ্ছে; তার পরও অতিযত্নের সঙ্গে রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন