যে কারণে ফেরত গেল ২০০০ টিকা
jugantor
যে কারণে ফেরত গেল ২০০০ টিকা

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

০৯ মার্চ ২০২১, ১৮:৫৯:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার আমতলী উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস টিকা নিতে মানুষের মাঝে অনীহা দেখা দিয়েছে। টিকা না নেয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ দুইশ' ভায়েলে দুই হাজার টিকা বরগুনা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফেরত পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, আমতলী-তালতলী উপজেলায় সাড়ে চার লাখ মানুষের জন্য সাত হাজার ২৮০ ডোজ টিকা দেয় স্বাস্থ্য বিভাগ। ওই টিকা গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করে বর্তমানে অব্যাহত রয়েছে। গত এক মাসে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ চার হাজার ১১১ জন মানুষকে টিকা দিয়েছেন। কিন্তু মানুষের টিকা নিতে অনীহা থাকায় প্রায় তিন হাজার ডোজ টিকা হাসপাতালে ফ্রিজে রয়ে যায়।

এদিকে বর্তমানে আমতলী হাসপাতালে আসা টিকার মেয়াদ আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ টিকা নিতে মানুষের অনীহা এবং মেয়াদ উত্তীর্ণের কারণে গত ৭ মার্চ দুইশ' ভায়েল অর্থাৎ দুই হাজার মানুষের টিকার ডোজ বরগুনা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফেরত পাঠিয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শংকর প্রসাদ অধিকারী বলেন, মানুষকে সচেতন করা সত্ত্বেও করোনাভাইরাসের টিকা নিতে চাচ্ছেন না। মেয়াদ উত্তীর্ণের কারণে দুইশ' ভায়েল অর্থাৎ দুই হাজার মানুষের টিকার ডোজ ফেরত দেয়া হয়েছে। তবে হাসপাতালে টিকার কোনো সংকট নেই।

যে কারণে ফেরত গেল ২০০০ টিকা

 আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
০৯ মার্চ ২০২১, ০৬:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার আমতলী উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস টিকা নিতে মানুষের মাঝে অনীহা দেখা দিয়েছে। টিকা না নেয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ দুইশ' ভায়েলে দুই হাজার টিকা বরগুনা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফেরত পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, আমতলী-তালতলী উপজেলায় সাড়ে চার লাখ মানুষের জন্য সাত হাজার ২৮০ ডোজ টিকা দেয় স্বাস্থ্য বিভাগ। ওই টিকা গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করে বর্তমানে অব্যাহত রয়েছে। গত এক মাসে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ চার হাজার ১১১ জন মানুষকে টিকা দিয়েছেন। কিন্তু মানুষের টিকা নিতে অনীহা থাকায় প্রায় তিন হাজার ডোজ টিকা হাসপাতালে ফ্রিজে রয়ে যায়।

এদিকে বর্তমানে আমতলী হাসপাতালে আসা টিকার মেয়াদ আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ টিকা নিতে মানুষের অনীহা এবং মেয়াদ উত্তীর্ণের কারণে গত ৭ মার্চ দুইশ' ভায়েল অর্থাৎ দুই হাজার মানুষের টিকার ডোজ বরগুনা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফেরত পাঠিয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শংকর প্রসাদ অধিকারী বলেন, মানুষকে সচেতন করা সত্ত্বেও করোনাভাইরাসের টিকা নিতে চাচ্ছেন না। মেয়াদ উত্তীর্ণের কারণে দুইশ' ভায়েল অর্থাৎ দুই হাজার মানুষের টিকার ডোজ ফেরত দেয়া হয়েছে। তবে হাসপাতালে টিকার কোনো সংকট নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন