নিখোঁজের ২৭ দিন পর সেপটিক ট্যাংকে মিলল শিশুর লাশ
jugantor
নিখোঁজের ২৭ দিন পর সেপটিক ট্যাংকে মিলল শিশুর লাশ

  রংপুর ব্যুরো  

১৩ মার্চ ২০২১, ২২:৪৪:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর নগরীতে নিখোঁজের ২৭ দিন পর সেপটিক ট্যাংক থেকে সিমান বাবু (৭) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার দুপুরে নগরীর ২৪নং ওয়ার্ডের রবার্টন্সগঞ্জ তাঁতিপাড়া গ্রামে নানার বাড়ির পাশে এক নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটি লালমনিরহাট জেলার বাসিন্দা রাজমিস্ত্রি বেল্লাল মিয়ার ছেলে।

এর আগে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয় সিমান। এ ঘটনায় ১৫ ফেব্রুয়ারি রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন সিমানের নানা আব্দুস সালাম।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সিমানের বাবা লালমনিরহাটে থাকেন। মা শাপলা খাতুন ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। আর সিমান তার নানার বাড়ি রংপুর নগরীর রবার্টন্সগঞ্জ তাঁতিপাড়া গ্রামে থাকত।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয় সিমান। ২৭ দিন পর শনিবার বাড়ির কাজ করতে গিয়ে বেলা ১১টায় শ্রমিকরা সেপটিক ট্যাংকে তার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুপুর ২টায় সিমানের লাশ উদ্ধার করে। পরে সিমানের নানা তার পরনের কাপড় ও জুতা দেখে লাশ শনাক্ত করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুর রশিদ। তিনি জানান, ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তায় শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

নিখোঁজের ২৭ দিন পর সেপটিক ট্যাংকে মিলল শিশুর লাশ

 রংপুর ব্যুরো 
১৩ মার্চ ২০২১, ১০:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর নগরীতে নিখোঁজের ২৭ দিন পর সেপটিক ট্যাংক থেকে সিমান বাবু (৭) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার দুপুরে নগরীর ২৪নং ওয়ার্ডের রবার্টন্সগঞ্জ তাঁতিপাড়া গ্রামে নানার বাড়ির পাশে এক নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটি লালমনিরহাট জেলার বাসিন্দা রাজমিস্ত্রি বেল্লাল মিয়ার ছেলে।

এর আগে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয় সিমান। এ ঘটনায় ১৫ ফেব্রুয়ারি রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন সিমানের নানা আব্দুস সালাম।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সিমানের বাবা লালমনিরহাটে থাকেন। মা শাপলা খাতুন ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। আর সিমান তার নানার বাড়ি রংপুর নগরীর রবার্টন্সগঞ্জ তাঁতিপাড়া গ্রামে থাকত।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয় সিমান। ২৭ দিন পর শনিবার বাড়ির কাজ করতে গিয়ে বেলা ১১টায় শ্রমিকরা সেপটিক ট্যাংকে তার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুপুর ২টায় সিমানের লাশ উদ্ধার করে। পরে সিমানের নানা তার পরনের কাপড় ও জুতা দেখে লাশ শনাক্ত করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুর রশিদ। তিনি জানান, ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তায় শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন